ঢাকা, বৃহস্পতিবার 15 June 2017, ০১ আষাঢ় ১৪২8, ১৯ রমযান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণার দাবি পার্বত্য নাগরিক পরিষদের

পার্বত্য চট্টগ্রামের নিহতদের আত্মার শান্তি কামনা করেন এবং মর্মান্তিকভাবে নিহত ও ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ দাবি এবং রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণার জোর দাবি জানিয়ে বিপদে সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা ও পার্বত্য নাগরিক পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার আলকাছ আল মামুন ভুঁইয়া।
গতকাল বুধবার এক বিবৃতিতে তিনি এ আহ্বান জানান। গত কয়েক দিনে পার্বত্য চট্টগ্রামে অতি বর্ষণে ও পাহাড় ধসে ২ সেনা অফিসার ৪ সেনা সদস্যসহ প্রায় ১৩৫ জন নিহত, মেজর মাহফুজ, ক্যাপটেন তানভির, করপোরাল আজিজ এবং সৈনিক শাহিনসহ প্রায় ১৪৫ জনেরও বেশি তাজা প্রাণ ঝড়ে যায়। এ প্রবল বর্ষণ ও প্রাকৃতিক দুর্যোগে পার্বত্য বাঙালি ছাত্রপরিষদ এবং সরকারসহ সকলকে এগিয়ে আসার অনুরোধ করে এ বিপদে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। তিনি, যার যা আছে তা নিয়ে সাহায্যে এগিয়ে আসতে এবং ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে দাঁড়াতে সকলের সযযোগিতা কামনা করেন।
বিবৃতিতে তিনি আল্লাহর কাছে দোয়া করেন, যে মুসলমানরা নিহত হয়েছেন তাদেরকে আল্লাহ যেন শহীদ হিসেবে কবুল করেন। তিনি নিহতদের আত্মার শান্তি কামনা করেন এবং মর্মান্তিকভাবে নিহত ও ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ দাবি এবং রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা এবং এখন থেকে জুম চাষের নামে পাহাড়ে জঙ্গল বা বন কাটা নিষিদ্ধ করার জোর দাবি জানান। 
বিবৃতিতে মামুন ভুঁইয়া হতাহত সকল সেনাবাহিনীর অফিসার, সেনাসদস্য ও তাদের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেন। প্রসঙ্গত, গত তিন দিনের প্রবল বর্ষণের ফলে সোমবার থেকেই পার্বত্য চট্টগ্রামে বিভিন্ন স্থানে পাহাড় ধস শুরু হয়। এতে হতাহত হওয়ার পাশাপাশি গোটা এলাকার যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। যোগাযোগ ব্যবস্থা পুনরুদ্ধার এবং পাহাড় ধসে ক্ষতিগ্রস্তদের সাহায্যের জন্য বিভিন্ন সেনা ক্যাম্পের সদস্যরা সোমবার থেকেই উদ্ধার কার্যে অংশগ্রহণ করে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ