ঢাকা, বুধবার 21 June 2017, ০৭ আষাঢ় ১৪২8, ২৫ রমযান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

খুলনার জুট স্পিনার্স মিল খুলে দিন এবং ঈদের পূর্বেই বকেয়া পাওনা পরিশোধ করুন -শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশন

খুলনার জুট স্পিনার্স মিল খুলে দিতে এবং বকেয়া পাওনা ঈদের পূর্বেই পরিশোধ করার আহবান জানিয়েছেন বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার। গতকাল মঙ্গলবার দেয়া বিবৃতিতে তিনি এই কথা বলেন।
মিয়া গোলাম পরওয়ার সরকারকে উদ্দেশ্য করে বলেন, পাট খাতের বিকাশে সরকারের কোনো পরিকল্পনা আছে বলে মনে হয় না। গত দেড় মাসে ছয়টি বেসরকারি পাটকল এবং ১২টি পাট ও সুতা কারখানা বন্ধ হয়েছে। বেকার হয়েছেন প্রায় ৮০ হাজার শ্রমিক। দেশের প্রায় এক কোটি পাটচাষির জীবনে এটা অশনিসংকেত। বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় এত দিন কী করেছে? এই বিপর্যয়ের জন্য তাদের জবাবদিহি করতে হবে।
তিনি আরো বলেন, ২০০৮ সালের নির্বাচনী ইশতেহারে পাটের সুদিন ফিরিয়ে আনার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল আওয়ামী লীগ। অথচ তাদের আমলের শেষ দিকে পাটকল-সুতাকল ও পাটচাষিদের দুর্ভাগ্য ফিরে আসে। তিনি বলেন, যে রপ্তানি ভর্তুকি বাবদ সরকারের কাছে তাদের পাওনা ৬৩৮ কোটি টাকা। এই টাকা পাওয়া গেলে হয়তো অনেকের পক্ষে কারখানা চালু রাখা সম্ভব হতো। অথচ প্রকৃত পক্ষে মিল মালিকরা ভর্তুকি পাচ্ছেনা।
মিয়া গোলাম পরওয়ার সরকারের প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, সরকারি মালিকানায় যে সমস্ত পাটকল রয়েছে, এগুলোতে দক্ষ ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করতে হবে এবং একই সাথে দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করে এগুলোতে কাজের শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে হবে। দ্বিতীয়ত পাটকলগুলোকে আধুনিকায়ন করতে হবে। পুরাতন মেশিনারিজসমূহ পরিবর্তন করে নতুন এবং আধুনিক মেশিনারিজ স্থাপন করতে হবে। পাট শিল্পে যে সমস্ত নতুন টেকনোলজি আবিষ্কৃত হয়েছে সেগুলোর প্রয়োগের মাধ্যমে পাটকলগুলোকে আধুনিকায়ন করতে হবে। একই সঙ্গে খুলনার জুট স্পিনার্স মিল খুলে দিয়ে এবং বকেয়া পাওনা ঈদের পূর্বেই পরিশোধ করার জন্য সরকারকে আন্তরিক ভাবে যথাযথ সহযোগিতা করার আহবান জানিয়ে, বন্ধ সকল মিল খুলে দেয়ার আহবান জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ