ঢাকা, রোববার 18 August 2019, ৩ ভাদ্র ১৪২৬, ১৬ জিলহজ্ব ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

কাতারিদের ‘অধিকারের প্রতি সম্মান’ দেখানোর আহবান তুরস্কের

অনলাইন ডেস্ক: প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে চলমান দ্বন্দ্ব নিরসন প্রচেষ্টায় কাতারিদের ‘অধিকারের প্রতি সম্মান’ দেখাতে বলেছে তুরস্ক।

স্থানীয় সময় শুক্রবার কাতারের প্রতিরক্ষামন্ত্রী খালেদ বিন মোহাম্মদ আল-আত্তিয়াহর সঙ্গে বৈঠকের পর এই মন্তব্য করেন তুরস্কের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ফিকরি ইসিক।

‘আন্তরিক সংলাপ ও কাতারিদের অধিকারের প্রতি সম্মান দেখিয়ে ভ্রাতৃপ্রতীম দেশগুলোর মধ্যকার চলমান সংকটের অবশ্যই নিরসন হওয়া উচিত’, বলেন তুরস্কের প্রতিরক্ষামন্ত্রী।

কাতারের রাজধানী দোহায় তুরস্কের সামরিক ঘাঁটি বন্ধের বিষয়ে প্রতিবেশীদের চাপের মধ্যেই বৈঠক করলেন দুই দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রী।

এর আগে জুনে কাতারের ঘাঁটিতে সেনা মোতায়েনের জন্য দুটি চুক্তির অনুমোদন দেয় তুরস্কের পার্লামেন্ট।

শুক্রবারের সফরের বিষয়ে কাতারের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, তাঁর তুরস্ক সফরের মূল উদ্দেশ্য দোহায় থাকা সামরিক ঘাঁটি নিয়ে আলোচনা করা।

‘কাতার ও তুরস্ক ঐতিহাসিকভাবেই সুসম্পর্ক বজায় রেখে আসছে। দুই দেশের মধ্যকার নিরাপত্তা সহযোগিতা বাড়ানোর পরিপ্রেক্ষিতে আমার এই সফর’, বলেন আত্তিয়াহ।

গত ৫ জুন উপসাগরীয় সহযোগিতা সংস্থার (জিসিসি) তিন দেশ কাতারের সঙ্গে বাণিজ্যিকসহ সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্ন করে। সৌদি আরবের নেতৃত্বে বাকি দুই দেশ হলো সংযুক্ত আরব আমিরাত (ইউএই) ও বাহরাইন। পরে তাদের সঙ্গে যোগ দেয় দুই আরব দেশ মিসর ও জর্দান এবং দক্ষিণ এশিয়ার দেশ মালদ্বীপ।

চলমান সংকটের শুরু থেকেই মধ্যপ্রাচ্যের প্রাকৃতিক সম্পদে সমৃদ্ধ ছোট দেশ কাতারের পাশে দাঁড়ায় তুরস্ক। আরবদের মিত্র দেশ তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ানসহ দেশটির কর্তাব্যক্তিরা শুরু থেকেই সংকটের শান্তিপূর্ণ সমাধানের জন্য দুটি পক্ষের প্রতি আহ্বান জানায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ