ঢাকা, সোমবার 3 July 2017, ১৯ আষাঢ় ১৪২8, ৮ শাওয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

বোলারদের দাপটে সিরিজে সমতা ফিরাল শ্রীলংকা

স্পোর্টস ডেস্ক : বোলারদের দুর্দান্ত নৈপুণ্যে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে জিম্বাবুয়েকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে স্বাগতিক শ্রীলংকা। এ জয়ে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ১-১ সমতা আনলো লংকানরা। সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৩২২ রান করে ৬ উইকেটে ম্যাচ জিতেছিলো সফরকারী জিম্বাবুয়ে।গল-এ টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্বান্ত নেয় শ্রীলংকা। প্রথম ব্যাট করতে নেমে  আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান সলোমন মির এবার ফিরেন শূন্য হাতে। এরপর ৬৭ রানের জুটি গড়েন আরেক ওপেনার হ্যামিল্টন মাসাকাদজা ও ক্রেইগ আরভিন। ব্যক্তিগত ৪১ রানে আউট হন মাসাকাদজা। ৫ বল পর ফিরেন ২২ রান করা আরভিন। দলীয় ৭৪ রানে তৃতীয় উইকেট হারানোর পর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট পড়তে থাকে জিম্বাবুয়ে। এতে ১৫৫ রানেই গুটিয়ে যায় জিম্বাবুয়ের ইনিংস। ফলে মাসাকাদজার ইনিংসটি দলের পক্ষে সর্বোচ্চ স্কোর। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান করেন ম্যালকম ওয়ালার। সাত নম্বরে নেমে ৬টি চারে ২৯ বলে ৩৮ রান করেন তিনি। জিম্বাবুয়েকে গুটিয়ে দিতে প্রধান ভূমিকা রাখেন লক্ষন সান্দাকান। ক্যারিয়ার সেরা বোলিং করে ৫২ রানে ৪ উইকেট নেন তিনি।জয়ের জন্য ১৫৬ রানের মামুলি টার্গেটে খেলতে নেমে শুরতে বিপদে পড়ে শ্রীলংকা। ১০ রানের মধ্যে ২ উইকেট হারিয়ে বসে তারা। দানুশকা গুনাথিলাকা ৮ ও কুসল মেন্ডিস ০ রানে ফিরেন।এরপর প্রাথমিক ধাক্কা সামাল দেন আরেক ওপেনার ও উইকেটরক্ষক নিরোশান ডিকবেলা এবং উপুল থারাঙ্গা। ১৬ ওভার ব্যাট করে দু’জনে ৬৭ রান করেন। এতে ভালো অবস্থায় পৌঁছে যায় শ্রীলংকা।
ব্যক্তিগত ৩৫ রান করে ডিকবেলা থামলে ক্রিজে থারাঙ্গার সঙ্গী হন অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ। শেষ পর্যন্ত থারাঙ্গা ও ম্যাথুজ মিলে দলের জয় নিশ্চিত করেন। চতুর্থ উইকেটে ৭১ বলে অবিচ্ছিন্ন ৮১ রানের জুটি গড়েন থারাঙ্গা ও ম্যাথুজ। ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ৩৪তম হাফ-সেঞ্চুরি তুলে ৭৫ রানে অপরাজিত থাকেন থারাঙ্গা। ৮৬ বল মোকাবেলা করে ৮টি চারে নিজের ইনিংসটি সাজান থারাঙ্গা। অন্যপ্রান্তে ৩৫ বলে ২৮ রান করে অপরাজিত থাকেন ম্যাথুজ। ম্যাচের সেরা হয়েছেন শ্রীলংকার সান্দাকান।আগামী ৬ জুলাই হাম্বানটোটায় অনুষ্ঠিত হবে সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডে।
সংক্ষিপ্ত স্কোর :জিম্বাবুয়ে : ১৫৫/১০, ৩৩.৪ ওভার। শ্রীলংকা : ১৫৮/৩, ৩০.১ ওভার।
ফল : শ্রীলংকা ৭ উইকেটে জয়ী। ম্যাচ সেরা : লক্ষণ সান্দাকান (শ্রীলংকা)।
সিরিজ : পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ১-১ সমতা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ