ঢাকা, সোমবার 18 November 2019, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

জার্মানির ঘরেই গেল কনফেডারেশনস কাপ

অনলাইন ডেস্ক: শেষ পর্যন্ত কনফেডারেশনস কাপ গেল জার্মানির ঘরেই।টানা দুটি কোপা আমেরিকার ফাইনালে আর্জেন্টিনাকে ধরাশায়ী করা চিলি এবার জার্মানিকেও চমকে দেবে, এমন অনুমান হয়তো অনেকেই করেছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তেমনটা হলো না। বিশ্বকাপজয়ী জার্মানিই পেল কাপ জয়ের প্রথমের স্বাদ। ফাইনালে চিলিকে ১-০ গোলে হারিয়ে প্রথমবারের মতো জিতল কনফেডারেশনস কাপ শিরোপা।

একেবারেই তরুণ খেলোয়াড়দের নিয়ে এবারের কনফেডারেশনস কাপে অংশ নিয়েছিল জার্মানি। অভিজ্ঞ ও তারকা ফুটবলাররা কেউ ছিলেন না বললেই চলে। সেই নবাগত দল নিয়েই জার্মানি জিতে নিয়েছে শিরোপা। জার্মান ফুটবলের পরবর্তী প্রজন্মেও যে অনেক প্রতিভাবান খেলোয়াড় আছে, তা খুব ভালোমতোই টের পাওয়া যাচ্ছে।

২০ মিনিটের মাথায় ম্যাচের একমাত্র গোলটি করেছিলেন লার্স স্টিনডল। এরপর আর গোলের দেখা পায়নি কোনো দলই। ১-০ ব্যবধানের জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে জার্মানি।

এবারের আসরে সবচেয়ে বেশি, তিনটি করে গোল করেছেন তিন জার্মান ফুটবলার লিওন গোরেৎস্কা, লার্স স্টিনডল ও টিমো ওয়ার্নার। জার্মানির অধিনায়ক জুলিয়ান ড্রাক্সটার নির্বাচিত হয়েছেন টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড়। ম্যাচ শেষে তিনি বলেছেন, ‘আমরা ভালো খেলেছি। জয়টা আমাদেরই প্রাপ্য ছিল। যেকোনো শিরোপা জয়ই খুব দারুণ ব্যাপার। কিন্তু এই তরুণ দলটা নিয়ে শিরোপা জয়টা আরো বিশেষ কিছু।’

এবারের কনফেডারেশনস কাপে সেরা গোলরক্ষক নির্বাচিত হয়েছেন চিলির অধিনায়ক ক্লদিও ব্রাভো। সেমিফাইনালে পর্তুগালের বিপক্ষে পেনাল্টি শুটআউটে দলকে দারুণভাবে জিতিয়েছিলেন তিনি। শিরোপা জয়ের অন্তিম লড়াইয়ে জয় না পাওয়ায় অবশ্য কিছুটা হতাশ ব্রাভো। তবে ভালো খেলার আত্মবিশ্বাস নিয়েই ফিরে যাচ্ছেন তিনি, ‘দুই দলের মধ্যে খুব বেশি ব্যবধান ছিল না। আমরা জিততে না পারায় খারাপ লাগছে। কিন্তু আমরা বিশ্বসেরা একটা দলের বিপক্ষে ভালো খেলেছি। আর আমাদের অবশ্যই ভুলগুলো থেকে শিখতে হবে।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ