ঢাকা, শুক্রবার 7 July 2017, ২৩ আষাঢ় ১৪২8, ১২ শাওয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

জালিয়াতি করে জামিন অস্ত্র মামলার আসামীকে আত্মসমর্পনের নির্দেশ

 

স্টাফ রিপোর্টার : একটি অস্ত্র মামলায় জাল এজাহার ও জব্দ তালিকা দাখিল করে জামিন নিয়ে পালিয়েছেন আসামী হুমায়ূন কবির ঝনু। তার জামিন বাতিল করে হাইকোর্ট এক সপ্তাহের মধ্যে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছেন। একইসঙ্গে সঙ্গে এ ঘটনায় যুক্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা দায়ের করতে সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেলকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

গত ২৭ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্ট থেকে জামিন নেয় হুমায়ুন কবির ঝনু। গতকাল বৃহস্পতিবার একই মামলার আরেক আসামী বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিম সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে জামিন আবেদন করলে বিষয়টি ধরা পড়ে। 

মুগদা থানায় করা অস্ত্র আইনের ওই মামলার অপর এক আসামি শহর আলী। শহর আলীর জামিন আবেদনের শুনানিতে এটি ধরা পড়ে। পাশাপাশি শহর আলীর জামিন আবেদনটি উপস্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে দিয়েছেন আদালত।

আদালতে শহর আলীর পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী নাসিমা আক্তার। সরকার পক্ষে শুনানি করেন সহকারী এটর্নি জেনারেল ইউসুফ মাহমুদ মোর্শেদ।

গত বছরের ১৩ নবেম্বর মুগদা থানায় অস্ত্র আইনে পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা করে পুলিশ। ওই দিনই পুলিশ চারজনকে অস্ত্র, গুলিসহ গ্রেফতার করে। তারা হলেন মো. ফেরদৌস, হুমায়ূন কবির ঝনু, মো. শহর আলী ও মো. মানিক। ওই মামলায় হুমায়ূন কবির ঝনু হাইকোর্টে জামিন আবেদন করেন। গত ২৭ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্ট তাঁর জামিন দেন। এই মামলায় অপর আসামি শহর আলী জামিন আবেদন করেন, যার শুনানি হয় গতকাল। 

ইউসুফ মাহমুদ মোর্শেদ বলেন, শুনানিকালে একই যুক্তিতে শহর আলীর আইনজীবী তার জন্য জামিনের আবেদন জানান। এ অবস্থায় ঝনুর দাখিল করা এজাহার ও জব্দ তালিকাটি সঙ্গে শহর আলীর দাখিল করা এজাহার ও জব্দ তালিকার তথ্যে অমিল দেখা যায়। জনুর আবেদনে দেখানো হয় তার কাছ থেকে কোনো গুলি বা অস্ত্র উদ্ধার করা হয়নি। এ বিষয়টি পর্যালোচনা করে আদালত ওই আদেশ দেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ