ঢাকা, শুক্রবার 7 July 2017, ২৩ আষাঢ় ১৪২8, ১২ শাওয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মামলার একমাত্র আসামী ধনীর দুলাল ইভান গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার : বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই রাজধানীর বনানীতে ফের জন্মদিনের দাওয়াত দিয়ে তরুণীকে বাসায় নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় দায়ের করা মামলায় একমাত্র আসামী ধনীর দুলাল বাহাউদ্দীন ইভানকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১১। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নারায়ণগঞ্জ থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। র‌্যাব-১১-এর উপ-অধিনায়ক মেজর আশিক বিল্লাহ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

র‌্যাব-১১-এর অধিনায়ক লে. কর্নেল কামরুল হাসান জানান, ‘নারায়ণগঞ্জের মাসদাইর এলাকার এক আত্মীয়ের বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।’

বনানীতে ধর্ষণের শিকার তরুণী বুধবার থানায় বাহাউদ্দীন ইভানের বিরুদ্ধে একটি ধর্ষণের মামলা দায়ের করেন। মামলায় বলা হয়, বনানীর ২ নম্বর সড়কের ন্যাম-ভিলেজে জন্মদিনের দাওয়াত দিয়ে মঙ্গলবার (৪ জুলাই) দিবাগত রাতে তাকে ধর্ষণ করে বাহা উদ্দিন ইভান। এরপর বুধবার (৫ জুন) দিবাগত মধ্যরাতের পর পুলিশ ও র‌্যাবের সদস্যরা ঘটনাস্থল বনানী থানাধীন ২ নম্বর রোডের ৫/এ নম্বর ‘ন্যাম-ভিলেজ’ নামে বহুতল ভবনের দ্বিতীয় তলার ফ্ল্যাটে তল্লাশি চালায়।

আগেও ধর্ষণ করে ভিডিও ছড়ানোর হুমকি দেন ইভান

জন্মদিনের কথা বলে ফাঁকা বাড়িতে ডেকে নিয়ে ধর্ষণের দায়ে অভিযুক্ত ব্যবসায়ীর ছেলে বাহাউদ্দিন ইভান আগেও একবার এই তরুণীকে ধর্ষণ করেন। বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে তখন এই তরুণীকে ধর্ষণ করেন ইভান। ধর্ষণের বিষয়ে ‘মুখ খুললে’ ইন্টারনেটে আপত্তিকর ভিডিও ছেড়ে দেয়ার হুমকিও দেন তিনি। পুলিশকে দেয়া অভিযোগে এসব তথ্য জানান ধর্ষণের অভিযোগকারী এই তরুণী। 

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, ইভান এর আগেও তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একবার ধর্ষণ করেন। ধর্ষণের বিষয়ে কাউকে বললে আপত্তিকর ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেন ইভান। হুমকি পেয়ে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন এবং পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে মামলা করার বিষয়ে কথা বলেন। অবশেষে সুস্থ হয়ে বুধবার তিনি মামলাটি করেন।

বনানী থানা সূত্র জানায়, বাহাউদ্দিন ইভানের বাবা ব্যবসায়ী। বনানীর একটি শপিংমলের মালিক তিনি। ইভান বিবাহিত এবং তার এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।

সেই রাতের বিষয়ে অভিযোগকারী তরুণী জানান, ইভান বনানীর ২ নম্বর রোডের ৫/এ নম্বরের ন্যাম ভিলেজে থাকেন। মঙ্গলবার রাতে ইভান ‘ইচ্ছার বিরুদ্ধে’ ও ‘জোরপূর্বক’ তাকে ধর্ষণ করেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে গত ১১ মাস আগে তাদের বন্ধুত্ব হয়। এরই সূত্র ধরে দুইজনের ঘোরাঘুরি ও দেখা-সাক্ষাৎ হতো। গত ৪ মাস আগে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক হয়। এই সম্পর্কের সূত্র ধরে মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে ইভান তাকে ফোন করে জন্মদিনের দাওয়াত দেয় ও বাড়িতে আসতে বলে। সেই রাতেই তাদের সম্পর্কের বিষয়টি ইভান তার মাকে বলবে বলে জানায় এবং তার মা পরিচয়ে এক মহিলার সঙ্গে ফোনে কথা বলায়। ওই কথিত মা তাকে জন্মদিনের দাওয়াতে বাসায় যেতে বলে।

তরুণী তার বড় বোনের সঙ্গে কথা বলে রাত সাড়ে ১০টায় রিকশায় করে ইভানের বাড়িতে যায়। তবে বাড়িতে গিয়ে সেখানে কাউকে দেখতে পায়নি। ফোনে কথা বলা মা’র সঙ্গে দেখা করতে চাইলে ইভান ওই তরুণীকে বলেন, বাবা-মা অসুস্থ ঘুমিয়ে আছে, জোরে কথা বলা যাবে না।

অভিযোগকারী তরুণী পুলিশকে জানান, সেই রাতে বাসায় গিয়ে তিনি কোনো ধরনের জন্মদিনের অনুষ্ঠানের আলামত দেখতে পাননি। ভয়ে বাড়ি ফিরতে চাইলে ইভান তাকে বাড়ি ফিরতে দেননি। তারপর তারা রাতের খাবার খান এবং ইভান তাকে জোর করে নেশাজাতীয় দ্রব্য খাওয়ান। নেশাজাতীয় দ্রব্য খেতে অস্বীকৃতি জানালে ইভান তাকে বলে, একদিন খেলে কিছু হবে না। এরপর রাত দেড়টার দিকে ইভান ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক তাকে ধর্ষণ করেন।

ধর্ষণের সময় আমি চিৎকার চেঁচামেচি করতে থাকলে রাত সাড়ে ৩টার দিকে তার সঙ্গে থাকা ব্যাগটি রেখে তাকে বাড়ি থেকে বের করে দেয় ইভান। পরে এক পথচারীর সাহায্যে তিনি নিজের বাসায় যান।

তরুণী দাবি করেন, সেই রাতে ইভান যে ব্যাগটি রেখে তাকে বাড়ি থেকে বের করে দেয় সেটিতে ওই মেয়ের ৩টি ড্রেস, ২টি জিন্স প্যান্ট, ১টি কুর্তা, ৩টি মোবাইল চার্জার, সিমকার্ড, মেমোরি কার্ড এবং নগদ ১৫ হাজার টাকা ছিল।

বনানী থানা জানিয়েছে, বনানী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুলতানা আক্তার মামলাটির তদন্ত করছেন। এ বিষয়ে বনানী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুল মতিন সাংবাদিকদের জানান, প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য তরুণীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিল। সেখান থেকে তাকে তেজগাঁওয়ে ভিকটিম সাপোর্টে সেন্টারে রাখা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার তার ডাক্তারি পরীক্ষা করা হয়।

গত ২৮ মার্চ বনানীর রেইনট্রি হোটেলে জন্মদিনের দাওয়াতে ডেকে নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের ছেলে শাফাত আহমেদ, শাফাতের বন্ধু নাঈম আশরাফ ওরফে আবদুল হালিমসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। সব আসামী বর্তমানে কারাগারে।

তরুণীর শারীরিক পরীক্ষা সম্পন্ন

বনানীতে ধর্ষণের অভিযোগে করা মামলার বাদী সেই তরুণীর শারীরিক পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগে তরুণীর শারীরিক পরীক্ষা হয়। ইভান শিল্পপতি বোরহান উদ্দিনের ছেলে। তিনি বিবাহিত। তার এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।

বনানী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবদুল মতিনের ভাষ্য, ঘটনার পর বাহাউদ্দিন পালিয়ে গেছেন। এর আগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা বনানী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সুলতানা আক্তার জানান, পুলিশ ইতোমধ্যেই আসামী ইভানের বাসায় অভিযান চালিয়েছে। তবে তাকে সেখানে পাওয়া যায়নি। 

এদিকে গতকাল বেলা ১১টা থেকে দেড়টা পর্যন্ত ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মামলার বাদী তরুণীর ফরেনসিক পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। পাঁচ সদস্যের মেডিক্যাল বোর্ডের প্রধান ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ডা. সোহেল মাহামুদ বলেন, ‘ধর্ষণের শিকার হওয়ার পর ওই তরুণী শর্ট টাইমের মধ্যে আমাদের কাছে এসেছেন। যেহেতু ৪৮ ঘণ্টা এখনও পার হয়নি, তাই এরমধ্যে কোনও কিছু ঘটে থাকলে আমরা পজিটিভ রিপোর্ট পাবো।’

বোর্ডের সদস্যরা হলেন- ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ডা. সোহেল মাহামুদ, ডা. প্রদীপ বিশ্বাস, ডা. মমতাজ আরা, ডা. রেজোয়ানা শারমিন ও ডা. কবীর সোহেল।

পরীক্ষা শেষে ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ডা. সোহেল মাহামুদ বলেন, ‘ধর্ষণের শিকার ওই তরুণীর বেশ কয়েকটি শারীরিক পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। বয়স নির্ধারণের জন্য এক্সরে এবং ধর্ষণের আগে তাকে নেশাজাতীয় ওষুধ খাওয়ানো হয়েছিল কিনালো সেজন্য ব্লাড ও ইউরিন সংগ্রহ করে মহাখালীতে অবস্থিত রাসায়নিক পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া তার ডিএনএ পরীক্ষার জন্য হাইঢেজোনাল সফট সংগ্রহ করা হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘কেমিক্যাল রিপোর্ট, রেডিওলজি রিপোর্ট এবং মাইক্রো-বাইলোজির রিপোর্ট আসার পরে ওই তরুণীর ফিজিক্যাল ফাইন্ডিংস (শারীরিক আলামত) যেগুলো পেয়েছি, সেগুলো মিলিয়ে আমরা চূড়ান্ত মতামত জানাবো।’ তিনি আরও বলেন, ‘৩-৪ সপ্তাহের মধ্যে আমরা রিপোর্টগুলো হাতে পাবো।’

তরুণীর শরীরে ধর্ষণ সংশ্লিষ্ট নির্যাতনের কোনও চিহ্ন রয়েছে কিনা জানতে চাইলে ডা. সোহেল বলেন, ‘মেয়েটি আমাদেরকে ফিজিক্যাল অ্যাসল্টের কথা বলেনি। আমরা তার শরীরেও এমন কিছু পাইনি। তার শরীরে আঘাতের কোনও চিহ্ন নেই।’

প্রতিবেদন ২৫ জুলাই

তরুণীকে ধর্ষণের মামলায় তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ২৫ জুলাই তারিখ ধার্য করেছেন আদালত। গতকাল মামলার এজাহার আদালতে পৌঁছলে ঢাকা মহানগর হাকিম জাকির হোসেন টিপু তা গ্রহণ করেন। আদালত বনানী থানার এসআই সুলতানা আক্তারকে মামলাটি তদন্ত করে ২৫ জুলাইয়ের মধ্য প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ