ঢাকা, বুধবার 21 November 2018, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

ধর্মবিশ্বাস আমার ক্যারিয়ার গঠনে সাহায্য করেছে: এ আর রহমান

অনলাইন ডেস্ক: ভারতের প্রখ্যাত সঙ্গীত শিল্পী এ আর রহমান বলেছেন, মুসলিম ধর্মবিশ্বাস তাকে তার ক্যারিয়ার সঠিকভাবে গঠনে দারুণ সাহায্য করেছে। অস্কার বিজয়ী এ শিল্পী বিশ্ব নন্দিত। কুড়ি বছর বয়সে তিনি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। লন্ডনে ‘গতকাল, আজ ও আগামীকাল’ শীর্ষক এ অনুষ্ঠানে তিনি অংশ নেন।

রয়টার্সকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে এ আর রহমান বলেন, সহজ সরল জীবন যাপন ও মানবতার পক্ষে অবস্থান নেওয়াই ইসলাম ধর্মের বিশ্বাস। ইসলামকে সাগরের সঙ্গে তুলনা করে তিনি বলেন, এ এক ভিন্ন জগত। সুফি ও দর্শনের ধারায় ইসলামের মূলমর্মবাণীকে তিনি মানুষের প্রতি ভালবাসা হিসেবে অভিহিত করেন। ইসলাম ধর্মের অনুসারী হিসেবে তিনি বর্তমান অবস্থানে পৌঁছাতে পেরেছেন এবং তার পরিবার একই দর্শন অনুসরণ করছে, একথা জানিয়ে বলেন, ইসলাম নিয়ে যে বিতর্ক রয়েছে, বিভিন্ন ঘটনা ঘটছে, আমি মনে করি তা রাজনৈতিক কারণেই ঘটছে।

এ আর রহমান বলেন, সুফীবাদ ইসলামের একটি অহিংস ধারা যা মানুষকে সন্মোহিত রীতির উপর ও ধর্মের রহস্যময় দিকটি উন্মোচন করতে আকৃষ্ট করে। তিনি লোককাহিনী, কবিতা ও আধ্যাত্মিকতার মধ্যে অবগাহনের কথাও জানান।

৫০ বছরের এই শিল্পী অস্কার ছাড়াও জার্মানির গোল্ডেন গ্লোব এ্যাওয়ার্ড পেয়েছে। ১৬০টি চলচ্চিত্রে গান গেয়েছেন, সুর দিয়েছেন। অস্কার বিজয়ী চলচ্চিত্র ‘স্লামডগ মিলিওনারি’ ও বলিউডের বিখ্যাত চলচ্চিত্র ‘লগান’ ও ‘তাল’ তার সঙ্গীতে জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

গান গাওয়া ছাড়াও তিনি সঙ্গীত রচনা করেন, সুরারোপ করেন, আন্তর্জাতিক সঙ্গীত শিল্পী মিক জাগার, সারাহ ব্রাইটম্যান ও পিসাক্ট ডলসের সঙ্গে সঙ্গীত পরিবেশনে অংশ নিয়েছেন। মৃদুভাষী এ আর রহমান জানান, আরো অর্জনের অনেক কিছু বাকি আছে তার এবং সঙ্গীত তাকে অনেক মানুষের কাছে নিয়ে গেছে। তিনি বলেন, আপনি যদি একটি অর্কেস্ট্রা হাতে নেন তাহলে তা ধনী কিংবা গরীব সবার মাঝে সঙ্গীতকে ছড়িয়ে দিতে পারবেন। বিভিন্ন বর্ণের মানুষের কাছে সঙ্গীত ছড়িয়ে দেওয়া যায়। বিভিন্ন ধর্মের মানুষের কাছেও। কিন্তু সঙ্গীতের মূল মর্মবাণী একই এবং তা হচ্ছে এক অভিন্ন মানবাত্মার জয়গান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ