ঢাকা, সোমবার 10 July 2017, ২৬ আষাঢ় ১৪২8, ১৫ শাওয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

এবার ক্রিকেটার শহীদের বিরুদ্ধে বিসিবিতে তার স্ত্রীর অভিযোগ

স্পোর্টস রিপোর্টার : এবার ক্রিকেটার মোহাম্মদ শহীদের বিরুদ্ধে ক্রিকেট বোর্ডে নির্যাতনের অভিযোগ করেছেন তার স্ত্রী ফারজানা আক্তার। ফারজানার অভিযোগ, তার স্বামী নির্যাতন করেন তাকে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডে (বিসিবি) এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগও করেছেন তিনি। তবে ফারজানার অভিযোগকে ‘ভিত্তিহীন’ বলে দাবি করছেন পেসার শহীদ। গতকাল মিরপুর স্টেডিয়ামে বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজনের কাছে চার পৃষ্ঠার লিখিত অভিযোগ জমা দিয়েছেন ফারজানা। এসময় তার সঙ্গে ছিল দুই সন্তান আরাফ (৩) ও আরহী (১১ মাস)।  ২০১১ সালের ২৪ জুন ফারজানা আর শহীদের বিয়ে হয়। বিয়ের পর নারায়ণগঞ্জে সংসার পাতেন দুজনে। গত ২৩ জুন ফারজানাকে বাসা থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে শহীদের বিরুদ্ধে। এসময় সাংবাদিকদের ফারজানা বলেন, ‘খ্যাতি পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সংসারের প্রতি আগ্রহ কমতে থাকে শহীদের। সেই সঙ্গে বাড়তে থাকে আমার প্রতি তার নির্যাতন। আমাকে সে এমন নির্যাতন করেছে, যা ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না। আমি দ্বিতীয়বার অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর সুখবরটা শহীদকে জানাতে সে ক্ষুব্ধ হয়ে আমার পেটে লাথি মারে!’ শহীদ অবশ্য স্ত্রীর আনা সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে কেউ একজন ষড়যন্ত্র করছে। আমার ধারণা, তার (ফারজানার) ছোট বোনের স্বামী এই ষড়যন্ত্রের সঙ্গে জড়িত। আমি স্পষ্ট করে বলছি, আমার স্ত্রীর সব অভিযোগ ভিত্তিহীন। কেউ তাকে ভুলিয়ে-ভালিয়ে এসব করতে বাধ্য করেছে। আমি ওকে বিসিবিতে না যেতে বলেছি। আর বলেছি, আমার মা এবং আব্বা গিয়ে তাকে বাসায় নিয়ে আসবে। কিন্তু তারপরও সে বিসিবিতে গিয়ে মিথ্যা অভিযোগ করেছে আমার বিরুদ্ধে।’ শহীদ আরো বলেন, “আগামী ৫-৬ দিনের মধ্যে বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়ে যেত। আমাদের দুই পরিবার মিলে আগামী সপ্তাহে বিষয়টি নিষ্পত্তি করার কথা ছিল। জাহাঙ্গীর ভাই নামে আমার একজন আত্মীয় আছেন। তিনি এখন দেশের বাইরে। তিনি ফেরার পরই বিষয়টি সুরাহা হওয়ার কথা ছিল। অথচ সে (ফারজানা) আমাকে আর কয়েকদিন সময় দিলো না। আমি মনে করি, ষড়যন্ত্র করে মানুষের কাছে আমাকে হেয় করার জন্য এটা করা হয়েছে। কিন্তু এতে ফারজানার কী লাভ বুঝতে পারছি না!” এ বিষয়ে বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘বিষয়টি পারিবারিক। আশা করি, দুই পরিবার মিলে দ্রুত বিষয়টি নিষ্পত্তি করবে। তবে শহীদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগগুলো সত্যি কিনা, তা আমরা যাচাই করে দেখবো। ’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ