ঢাকা, মঙ্গলবার 11 July 2017, ২৭ আষাঢ় ১৪২8, ১৬ শাওয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

ফেনীর ধর্মপুরে অজানা আতংক

ফেনী সংবাদদাতা: কোন্দলের জেরে নিজ দলের প্রতিপক্ষদের হাতে ঈদের পরদিন রেজাউল করিম নামের এক যুবলীগ নেতা খুনের ঘটনায়  ফেনী সদর উপজেলার ধর্মপুরে জনমনে এখনো আতংক কাটেনি। ঘটনার এক সপ্তাহ গত হলেও এখনো স্বাভাবিক হয়নি শহরতলীর সীমান্তবর্তী এ জনপদ। গত বুধবার সরেজমিন ঘুরে এ চিত্র দেখা যায়। আমতলী বাজারে ইউনিয়ন পরিষদ ভবন গেইটে এএসআই মো: আছহাব উদ্দিন খানের নেতৃত্বে ৫ জন পুলিশ সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন। রাতেও আরেক দল পুলিশ টহলে দায়িত্ব পালন করেন। পরিষদ ভবনও ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে পারেনি। ভবনের সামনেই পড়ে আছে আগুনে পোড়া ও ভাঙ্গা চোরা বিভিন্ন আসবাবপত্র। ভিতরেও একই দৃশ্য। চেয়ার-টেবিল অগোছালো। কাগজপত্র ছড়িয়ে-ছিটিয়ে রয়েছে। বৃষ্টি হওয়ায় অনেকটা জুবুথুবু অবস্থা। সেবাগ্রহীতার সংখ্যাও কম। রেজাউল হত্যা মামলার প্রধান আসামী হওয়ার পর থেকে আত্মগোপনে রয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যান সাহাদাত হোসেন শাকা। তার অনুপস্থিতিতে ইউনিয়ন পরিষদে একধরনের অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। ইউপি সচিব সুব্রত কুমার শীলও এদিক-ওদিক ঘুরে দায়িত্ব পালন করছেন। তার বসার মত কোন পরিবেশ নেই। সচিব জানিয়েছেন, একটা ঘটনা যেহেতু ঘটেছে তাই সাধারণ মানুষের মাঝে কিছুটা আতংক তো রয়েছেই। ইউনিয়ন পরিষদেও লোকজন কম আসছেন। তবে যারা আসছেন তাদের যথারীতি সেবা দেয়া হচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ