ঢাকা, বুধবার 12 July 2017, ২৮ আষাঢ় ১৪২8, ১৭ শাওয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মিরাজের ভাবনায় নেই অস্ট্রেলিয়া

স্পোর্টস রিপোর্টার : ইংল্যান্ডের বিপক্ষে নজরকাড়া অভিষেকের পর ঘরের মাঠে কোনো টেস্ট খেলেননি মেহেদী হাসান মিরাজ। সামনেই ঘরের মাঠ আবারও মাতানোর সুযোগ রয়েছে তরুণ তুর্কীর। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগস্ট-সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশ সফর করবে অস্ট্রেলিয়া। ওয়ার্নার-স্মিথরা বাংলাদেশে এসে খেলবে দুই টেস্ট। তবে ঘরের মাঠের সিরিজ নিয়ে ভাবছেন না মিরাজ। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দুই টেস্টে ১৯ উইকেট পাওয়া মিরাজের থেকে অস্ট্রেলিয়া সিরিজেও প্রত্যাশা থাকবে আকাশচুম্বী। ডানহাতি এ স্পিনার আবারও নিজের ঘূর্ণি যাদুতে বধ করবেন ওয়ার্নার, ম্যাক্সওয়েলদের, এমন স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছেন ক্রিকেটাপ্রেমীরা। কিন্তু মিরাজ এত দ্রুত অতদূর চিন্তা করছেন না। তার ভাবনায় এখন শুধু ফিটনেস। অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের জন্য ফিটনেস ক্যাম্প করছে জাতীয় দল। এ ক্যাম্পের পর শুরু হবে কন্ডিশনিং ক্যাম্প। ২৭ জুলাই পর্যন্ত হবে ক্যাম্প। এরপরই স্কিল অনুশীলনে নামবে বাংলাদেশ এ সময়টায় নিজের ফিটনেস সর্বোচ্চ পর্যায়ে নিয়ে যেতে চান মিরাজ, যেন আগামী এক বছর এবং টানা সূচিতে ফিটনেসে কোনো ঘাটতি না থাকে। গতকাল জিম সেশন শেষে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে মিরাজ বলেন, আমি ব্যক্তিগতভাবে অস্ট্রেলিয়া সিরিজ নিয়ে চিন্তা করছি না। আমি আমার স্কিল, ফিটনেস উন্নতি করার জন্য কাজ করছি। যখন অস্ট্রেলিয়া আসবে, যখন স্কিল অনুশীলন করা শুরু করব তখন থেকেই অস্ট্রেলিয়াকে নিয়ে চিন্তা করা শুরু করবো। এখন থেকেই যদি চিন্তা করা শুরু করি তাহলে বর্তমানে যে ফিটনেস ট্রেনিং করছি সেখান থেকে নজর সরে যাবে। আর এখন যদি ফিটনেসে মনোযোগী হই তাহলে ওখানেই যথারীতি ওখানেও ভালো হবে। ফিটনেসের ওপর অতি গুরুত্ব দেয়ার কারণও জানিয়েছেন মিরাজ। ডানহাতি এ স্পিন অলরাউন্ডার বলেছেন, ফিটনেস নিয়ে কাজ করার সুযোগ সব সময় আসে না। খেলার সময় ফিটনেস ট্রেনিং করানো হয় না। তখন অন্য সূচি থাকে। সামনে আমাদের যে ব্যস্ত সূচি আছে সেজন্য সবার ফিটনেস ঠিক রাখা এবং এক বছরে কোনো সমস্যা না হয় সেজন্য ফিটনেস অতি গুরুত্বপূর্ণ। ফিটনেস সর্বোচ্চ পর্যায়ে থাকলে খেলার সময় একটু রানিং এবং জিম করলেই হবে। এখন ফিটনেস পুরোপুরি পেয়ে গেলে পরবর্তীতে কোনো সমস্যা হবে না।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ