ঢাকা, শনিবার 15 July 2017, ৩১ আষাঢ় ১৪২8, ২০ শাওয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

চিকিৎসার জন্য আজ লন্ডন যাচ্ছেন খালেদা জিয়া

 

স্টাফ রিপোর্টার: আজ শনিবার রাতে চিকিৎসার জন্য লন্ডন যাচ্ছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া। অ্যামিরাটস এয়ার লাইন্সের ফ্লাইটে তিনি হযরত শাহ জালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর থেকে ঢাকা ত্যাগ করবেন। দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর একথা জানান। তিনি বলেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া শনিবার জুলাই যুক্তরাজ্য সফর করবেন। তিনি চোখে ও পায়ের চিকিৎসার জন্য লন্ডন যাচ্ছেন। কবে নাগাত বেগম জিয়া দেশে ফিরবেন- প্রশ্ন করা হলে মহাসচিব বলেন, এটা নির্ভর করবে তার চিকিৎসার ওপর।

সর্বশেষ ২০১৫ সালে ১৬ সেপ্টেম্বর খালেদা জিয়া চিকিৎসার জন্য লন্ডন যান। ওই সময়ে লন্ডনে দীর্ঘদিন যাবত চিকিৎসার জন্য অবস্থানরত বড় ছেলে তারেক রহমানসহ তার পরিবারের সাথে ঈদ উদযাপন করে ২১ নভেম্বর দেশে ফিরে আসেন তিনি।

পর্যবেক্ষকরা বলছেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন ও ২০ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতা বেগম খালেদা জিয়ার লন্ডন সফর রাজনৈতিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ। এ সময়ে তিনি লন্ডনে থাকা বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সাথে তিনি রাজনৈতিক ও সাংগঠনিক নানা বিষয়ে পরামর্শ করবেন। আন্দোলন ও নির্বাচন ইস্যুতে সিদ্ধান্ত হতে পারে শীর্ষ দুই নেতার আলোচনায়। এছাড়া কূটনৈতিক পর্যায়েও আলোচনা করার একটা সুযোগ থাকবে। দলীয় সূত্রে জানা গেছে, নিজের অনুপস্থিতিতে দল পরিচালনা এবং সংগঠনকে গতিশীল রাখতে এরই মধ্যেই সিনিয়র নেতাদের সাথে বৈঠক করেছেন খালেদা জিয়া। 

দলের নেতারা জানান, আগামী জাতীয় নির্বাচনের আগে এটাই হতে পারে খালেদা জিয়ার শেষ লন্ডন সফর। তাই নির্বাচনের প্রস্তুতিসহ সার্বিক বিষয়ে এই সফরেই তারেক রহমানের সাথে আলোচনা চূড়ান্ত করতে চান বিএনপি প্রধান। এর মধ্যে আন্দোলন, জাতীয় নির্বাচন, স্থায়ী কমিটির শূন্য পদ পূরণ, জাতীয় নির্বাহী কমিটির গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি পদে পদায়ন, গুরুত্বপূর্ণ জেলা কমিটি গঠনের ব্যাপারে তারেক রহমানের সাথে আলোচনা করবেন বেগম জিয়া। এতে সফরসঙ্গী নেতারাও থাকবেন। এ ছাড়া আগামী জাতীয় নির্বাচনের বিষয়ে আন্তর্জাতিক মহলের চাওয়া-পাওয়া কি সেসব বিষয়েও আলোচনায় হবে। আন্তর্জাতিক সমর্থন আদায়ে বিএনপির আরো কী করণীয় রয়েছে, তাও গুরুত্বের সাথে আলোচনায় আসবে। পাশাপাশি কবে নাগাদ আন্দোলনে নামা উচিত হবে তাও চূড়ান্ত হবে এই সফরে। 

জানা গেছে, আগামী নির্বাচনের জন্য বিএনপির প্রার্থী মনোনয়নের প্রক্রিয়া নিয়েও তারেক রহমানের সাথে মতবিনিময় করবেন তিনি। লন্ডন সফর শেষ করে নির্বাচনকালীন সরকারের রূপরেখা দেবেন খালেদা জিয়া। রূপরেখা কী হবে, তা নিয়েও সেখানে আলোচনা হবে। সবমিলিয়ে আগামীতে বিএনপির আন্দোলন ও নির্বাচনী কৌশল চূড়ান্ত হতে পারে এ সফরে। এ ছাড়া কূটনীতিক দিক দিয়েও এ সফর গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে পারে বলে ইঙ্গিত দেন তিনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ