ঢাকা, রোববার 16 July 2017, ১ শ্রাবণ ১৪২8, ২১ শাওয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

তুরস্কে ব্যর্থ অভ্যুত্থানের প্রথম বার্ষিকী পালিত

১৫ জুলাই, আনাদোলু নিউজ এজেন্সি : ১৫ জুলাই তুরস্কে পালিত হয় ব্যর্থ সেনা অভ্যুত্থানের প্রথম বার্ষিকী। এ উপলক্ষে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে দেশটির সরকার। গত বছরের ১৫ জুলাই তুর্কি সেনাবাহিনীর একদল বিপথগামী সদস্য যখন এরদোগান সরকারকে হটাতে অভ্যুত্থানের চেষ্টা করছিল, তখন রাজপথে হাজারো তুর্কি রুখে দিয়েছিল সেই চেষ্টা। এতে আড়াই শতাধিক মানুষ নিহত হয়। তবে এ যাত্রায় বেঁচে যায় এরদোগানের সরকার এবং দেশটির গণতান্ত্রিক ধারাবাহিকতা।
তুর্কি সরকারের মতে, ২০১৬ সালের ১৫ জুলাই তুরস্কে যে ব্যর্থ অভ্যুত্থান হয়েছিল তার জন্য ফেতুল্লাহ্ সন্ত্রাসী সংগঠন এবং যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক নেতা ফেতুল্লাহ্  গুলেন দায়ী। এ ব্যর্থ অভ্যুত্থানে ২৫০ জন শহীদ এবং ২২০০ জন আহত হন।
ফেতুল্লাহ্ সন্ত্রাসী সংগঠনের জনবল  তুর্কি সংস্থা বিশেষ করে সামরিক, পুলিশ ও বিচার বিভাগে অনুপ্রবেশের মাধ্যমে তুর্কি সরকারকে উৎখাত করার জন্য ফেতুল্লাহ্ সন্ত্রাসী সংগঠনটি  দীর্ঘমেয়াদি প্রচারাভিযান চালায় বলে অভিযোগ করেছে আঙ্কারা।
গত বছরের ব্যর্থ সামরিক অভ্যুত্থান প্রচেষ্টাকে স্মরণ করে তুরস্কের জনগণ।
দেশটির প্রেসিডেন্ট রজব তৈয়ব এরদোগানকে উৎখাতে তুর্কি সেনাবাহিনীর একাংশের চালানো ওই প্রচেষ্টায় অন্তত ২৬০ জন নিহত হয়েছিলেন, আহত হন দুই হাজারেরও বেশি মানুষ।
গতকাল শনিবার ব্যর্থ ওই অভ্যুত্থান প্রচেষ্টার প্রথম বছরপূর্তিতে তুরস্কজুড়ে ছুটি ঘোষণা করা হয়।
দিনটি উপলক্ষ্যে ইস্তাম্বুলের রাস্তাগুলোতে বিশাল বিশাল বিলবোর্ড-পোস্টার টানানো হয়েছে, যেগুলোতে অভ্যুত্থানবিরোধী জনগণকে সেনাবাহিনীর সঙ্গে লড়াই করতে দেখা যাচ্ছে। 
এ দিন রাজধানী আঙ্কারায় এরদোগান সমর্থকদের র‌্যালি করার কথা রয়েছে। পার্লামেন্ট ভবনের সামনে যেখানে বিদ্রোহী সেনারা বোমা ফেলেছিল সেখানে প্রেসিডেন্ট এরদোগানের ভাষণ দেবার কথা।
ইস্তাম্বুলের বস্ফোরাস সেতুর যেখানে জনগণ অভ্যুত্থানের চেষ্টাকারী বিদ্রোহী সেনাদের মোকাবিলা করেছে, সেখানেও অপর এক র‌্যালিতে এরদোগানের উপস্থিত থাকার কথা। 
‘জুলাই অভ্যুত্থান’ চেষ্টার জন্য তুরস্ক সরকার যুক্তরাষ্ট্রে স্বেচ্ছা নির্বাসনে থাকা তুর্কি ধর্মীয় নেতা ফেতুল্লাহ গুলেনের সমর্থকদের দায়ী করলেও গুলেন এই অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন।
অপরদিকে তুরস্ক সরকারের অনুরোধ সত্ত্বেও গুলেনকে দেশে ফেরত পাঠাতে রাজি হয়নি যুক্তরাষ্ট্র।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ