ঢাকা, বুধবার 19 July 2017, ৪ শ্রাবণ ১৪২8, ২৪ শাওয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

পথচারীদের মরণ ফাঁদ!

চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) সংবাদদাতা: দিনাজপুরের চিরিরবন্দর আলোকডিহি জেবি উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনের বৃহত্তাকার রেন্ট্রিকরাই গাছ ২টি মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। বিদ্যালয়ের মুল ফটকের সামনে উপরের দিকে হেলে পড়া গাছ ২টির ডালপালা বেশী ভাগেই মরে শুকিয়ে এই বর্ষা মৌসুমে ফুরফরে হয়ে গেছে। জরুরী ভাবে গাছ ২টির শুকনো ডালপালা কর্তন করা না হলে ডালপালা ভেঙ্গে প্রাণহানীসহ মহাসড়ক দিয়ে চলা পথচারীদের বড় ধরনের দূঘর্টনার আশঙ্কা করছে এলাকাবাসী।
জানা গেছে, উপজেলার আলোকডিহি ইউনিয়নে ঘাটেরপাড় এলাকায় ১৯৩৭ সালে গছাহার শাহাপাড়ার জান বকস্ দারোগা আলোকডিহি মৌজায় রংপুর-দিনাজপুর মহাসড়কের ইছামতি নদীর তীরে আলোকডিহি জেবি উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত করে। প্রতিষ্ঠাকালে বিদ্যালয়ের সম্মূখে দু’টি রেন্ট্রিকরাই গাছ রোপন করেন। ওই গাছ দু’টি বিদ্যালয়ের শোভাবর্ধন করে। এখন গাছগুলো বয়সের ভারে ন্যুব্জ। যা ওই এলাকার ৫০ বছরেও পুরোনো গাছ। শতবর্ষী ওই গাছ দু’টির অধিকাংশ ডাল-পালা মরে শুকে গেছে। অনেক ডাল হাল্কা বাতাসে ভেঙ্গে পড়ে বলে জানান এলাকাবাসী। স্থানীয় বাসিন্দা মমিনুল ইসলাম জানান, গাছটির কয়েকটি বড় ডাল শুকিয়ে ঝঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে যে কোন সময় ভেঙ্গে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।
আলোকডিহি জেবি স্কুলের প্রধান শিক্ষক নন্দন কুমার দাস বলেন, গাছ দু’টির অধিকাংশ ডাল-পালা মরে শুকে গেছে। যে কোন মুহূর্তে ভেঙ্গে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। শতবর্ষী ওই কোটি টাকার মুল্যবান গাছ দুটি ধীরে ধীরে শুকিয়ে ডালপালা নষ্ট হয়ে যার মূল্য দিন দিন কমে যাচ্ছে। তাই এলাকাবাসী ওই গাছ দু’টি দ্রূত বিক্রির ব্যবস্থা করে দুর্ঘটনার হাত থেকে পথচারী ও কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রীকে রক্ষা করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
এ ব্যাপারে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সহাকারী কমিশনার (ভূমি) মো: মাশফাকুর রহমান জানান, শুকনো গাছ দুটির কথা শুনছি। সরজমিনে দেখে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ