ঢাকা, শুক্রবার 18 January 2019, ৫ মাঘ ১৪২৫, ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

গাইবান্ধায় বানের পানিতে ছড়াচ্ছে চর্মরোগ

অনলাইন ডেস্ক: বানের পানি নামলেও দুর্ভোগে আছেন গাইবান্ধার বনভাসী মানুষ। এবার তাদের শরীরে দেখা দিয়েছে চর্মরোগ। স্বাস্থ্য বিভাগ মেডিকেল টিম গঠন করলেও সেবা না পাওয়ার অভিযোগ বন্যাকবলিত মানুষের। অন্যদিকে, পানি শোধনের উদ্যোগ না নেয়ায় দূষিত পানি পান করতে হচ্ছে দূর্গতদের। স্বাস্থ্য বিভাগ বলছে, জনবল ও নৌযান না থাকায় দুর্গম চরে স্বাস্থ্য সেবা দেয়া যাচ্ছেনা।

ফুলছড়ি উপজেলার বালাসীঘাট থেকে নৌকায় ৪০ মিনিটের পথ পাড়ি দিলেই ব্রহ্মপুত্র নদের কোলে উজালডাঙ্গা চর। বানের জল নেমে গেলেও বন্যায় ডুবে থাকা টিউবওয়েলের পানি শোধনের কোন উদ্যোগ নেই। বাধ্য হয়ে দুষিত পানি পান করছেন চরের মানুষ। অন্যদিকে বন্যার পানির মধ্যে টানা এক সপ্তাহ বসবাস করায় চরে বসবাসকারী অনেকের শরীরে দেখা দিয়েছে চর্মরোগ। সর্দি, কাশি ও জ্বরের মতো অসুখতো আছেই। একই চিত্র পার্শ্ববর্তী কোচখালী চরেও। তাদের অভিযোগ, এখনো কোন ডাক্তারের দেখা পাননি তারা।

বাড়িঘর থেকে বন্যার পানি নেমে যাওয়ার পর মানুষের কষ্ট কিছুটা কমেছে। কিন্তু কাজকর্ম না থাকায় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িঘর মেরামত করতে পারছেননা চরের বাসিন্দারা। জনবল ও নৌযান সঙ্কটের কারণে সবগুলো চরে স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছানো সম্ভব হচ্ছে না বলে জানালেন সিভিল সার্জন।  উজানের ঢল ও বৃষ্টিপাতের ফলে সৃষ্ট বন্যায় গাইবান্ধা সদর, সাঘাটা, ফুলছড়ি ও সুন্দরগঞ্জ উপজেলার প্রায় আড়াই লাখ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়।-সময় টিভি

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ