ঢাকা, রোববার 23 July 2017, ৮ শ্রাবণ ১৪২8, ২৮ শাওয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

শিক্ষার্থীরা জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করেছিল পুলিশ তাদের নিবৃত করে ................ডিএমপি কমিশনার

 

স্টাফ রিপোর্টার : শাহবাগে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশের অ্যাকশন বিষয়ে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, ‘আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের প্রথম থেকেই অনেক বোঝানো হয়েছিল। তাদের রাস্তা (শাহবাগ) ছেড়ে দেয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছিল। কিন্তু তারা পুলিশের কথা শোনেনি। শিক্ষার্থীরা তারপরও রাস্তা বন্ধ করে যান চলাচলে বাধা সৃষ্টি করে। জনগণের দুর্ভোগ সৃষ্টি করে। তখন পুলিশ টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে তাদের নিবৃত করে।’ গতকাল শনিবার ডিএমপি সদর দফতরে এক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের এই কথা বলেন তিনি।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘পুলিশ ছাত্রদের প্রথমে বুঝিয়েছে। কিন্তু ছাত্ররা কথা শোনেনি। এরপর পুলিশ টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে। এরপরও এখানে কোনও ল্যাকিংস থাকলে তা যাচাই বাছাই করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

বৃহস্পতিবার রাজধানীর সাতটি কলেজের শিক্ষার্থীরা পরীক্ষার রুটিন প্রকাশের দাবিতে শাহবাগে আন্দোলন করে। আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন, তাদের ওপর পুলিশ আগ বাড়িয়ে হামলা করেছে। এতে অন্তত তাদের ১০ শিক্ষার্থী আহত হয়। এদের মধ্যে গুরুতর আহত হয় তিনজন। একজনের দুইচোখ গুরুতর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ওই ঘটনার ভিডিওতে দেখা যায়, টিএসসির দিক থেকে আসা একটি মিছিলে পুলিশের অ্যাকশন। ঘটনার পর পুলিশের এমন অ্যাকশনের সমালোচনা শুরু হয়। সমালোচনার মুখে সাংবাদিকদের ওই ঘটনা সংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তর দিলেন ডিএমপি কমিশনার।

একই অনুষ্ঠানে অপর এক প্রশ্নের জবাবে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘গুলশান হামলায় জড়িত বাশারুজ্জামান ওরফে চকলেট বাশার ও ছোট মিজান অপারেশন ঈগল হান্টে নিহত হয়েছে। বাশারের ছবি আমরা মিলিয়ে দেখেছি। জঙ্গি সোহেল মাহফুজ তাদের মৃত্যুর বিষয়টি জানিয়েছে। এরপরও পরিচয় নিশ্চিত হতে তাদের ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ