ঢাকা, রোববার 23 July 2017, ৮ শ্রাবণ ১৪২8, ২৮ শাওয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মালয়েশিয়ায় অনেক বাংলাদেশী খারাপ অবস্থায় আছে

স্টাফ রিপোর্টার : মালয়েশিয়ায় অনেক বাংলাদেশী খারাপ অবস্থায় রয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন বাংলাদেশের মানবাধিকার সংগঠন ‘অধিকার’র সম্পাদক আদিলুর রহমান খান। তিনি বলেন, মালয়েশিয়া বিমানবন্দরের একটি কক্ষে আমাকে আটক করে রাখা হয়েছিল। সেখানে ৬০ জনের বেশি লোক ছিলেন, যার অর্ধেকের বেশি বাংলাদেশী। যাদের অনেকে বেশ খারাপ অবস্থায় আছেন।

গতকাল শনিবার সকালে রাজধানীর গুলশানে অধিকার কার্যালয়ে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে আদিলুর রহমান খান এ কথা বলেন।

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশীদের আটকের পর রাখা ডিটেনশন সেন্টার সম্পর্কে তিনি বলেন, এই ডিটেনশন সেন্টারগুলো সরকারি না। এগুলো বেসরকারি। এখানে শুধু পানি বিনা মূল্যে পাওয়া যায়। টাকা থাকলে খাবার কিনে খাওয়া যায়। নইলে না। এখানে অনেক বাংলাদেশী আছেন, যাঁরা পানি খেয়ে দিনের পর দিন বেঁচে আছেন।

অধিকারের সম্পাদক আরো বলেন, বিমানবন্দরে ওই কক্ষে থাকার সময় কয়েকজনের সঙ্গে তার কথা হয়েছে। তাদের একজন মো. ইমরান হোসেন। তিনি প্রফেশনাল ভিসা নিয়ে আজকে নিয়ে ষষ্ঠ দিনের মতো আটকা আছেন।

আদিলুর রহমান খান বলেন, তার সঙ্গে বাংলাদেশী এক নারীকে ফেরত পাঠানো হয়েছে। ওই নারী তাঁকে জানিয়েছেন, তাঁর স্বামী ১১ বছর ধরে মালয়েশিয়ায় কাজ করেন। তিন মাসের ভিসা নিয়ে তিনি স্বামীর কাছে যাচ্ছিলেন। কোনো কারণ না দেখিয়ে তাঁকে দেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

অধিকার সম্পাদক ২০ জুলাই ভোররাত চারটায় ঢাকা থেকে মালয়েশিয়ায় যান। সেখানে কুয়ালালামপুর ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে নামার পর তাঁকে আর ঢুকতে দেয়া হয়নি। একটি মানবাধিকার সংগঠনের সম্মেলনে যোগ দিতে তিনি মালয়েশিয়ায় যাচ্ছিলেন। এ ব্যাপারে সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেন, মালয়েশিয়ার মানবাধিকার কমিশন বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে। এ ব্যাপারে তাই তিনি এখন কিছু বলতে চান না।

এ সময় অধিকার’র সভাপতি অধ্যাপক সি আর আবরার বলেন, বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এসব বাংলাদেশীর ব্যাপারে কিছু জানে কি না বা কোনো উদ্যোগ নিয়েছে কি না, তা জানা প্রয়োজন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ