ঢাকা, সোমবার 24 July 2017, ৯ শ্রাবণ ১৪২8, ২৯ শাওয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

দেশে কোন খাদ্য ঘাটতি নেই

উলিপুর (কুড়িগ্রাম) সংবাদদাতা: দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া এমপি বলেছেন, দেশে কোন খাদ্য ঘাটতি নেই। কেউ যেন খাদ্যাভাবে মারা না যায়। বিনা চিকিৎসায় মারা না যায়। সে জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবাইকে সতর্ক থাকতে বলেছেন। তিনি গৃহহীন সকলকে গৃহ নির্মাণ করে দিতে বলেছেন। অসহায় দুর্গতদের সত্যিকার তালিকা তৈরী করে সরকার সহায়তা করছে। পানি না কমে যাওয়া পর্যন্ত বানভাসী মানুষদের খাদ্য সহায়তা দেবে সরকার। স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের উদ্দেশ্যে বলেন, দলীয় দৃষ্টিকোণ থেকে ত্রাণ বিতরণ করবেন না। বন্যার পানি নেমে গেলে রাস্তা-ঘাট, ব্রিজ-কালভাট-স্কুল সংস্কার করা হবে। চরাঞ্চলে প্রতিবন্ধী, বিধবা সামর্থ্য নেই এমন মানুষদের ঘর-বাড়ি উচু করনের জন্য ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।  
কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার বজরা ইউনিয়নের চাঁদনী বজরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে সোমবার (১৭ জুলাই) দুপুরে ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। এসময় বক্তব্য রাখেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত সচিব শাহ কামাল। উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত সচিব খালেদ মাহমুদ, যুগ্ম সচিব মোঃ মোহসিন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ জাফর আলী, জেলা প্রশাসক আবু ছালেহ মোহাম্মদ ফেরদৌস খান, পুলিশ সুপার মেহেদুল করিম, চিলমারী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শওকত আলী সরকার বীর বিক্রম, উলিপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হায়দার আলী মিঞা, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাম্মদ শফিকুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম হোসেন মন্টু, আওয়ামীলীগ নেতা সৌমেন্দ্র প্রসাদ পান্ডে গবা, অধ্যক্ষ আহসান হাবিব রানা, পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ সরকার, বজরা ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল করিম আমিন প্রমুখ। মন্ত্রী বজরা ইউনিয়নের বন্যাদুর্গত ১ হাজার ২শত পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন। এ সময় ১০ কেজি করে চাল ও শুকনো খাবার সহ বিশেষ প্যাকেট দেয়া হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ