ঢাকা, বুধবার 26 July 2017, ১১ শ্রাবণ ১৪২8, ১ জিলক্বদ ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

অব্যাহত গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিতে রাজশাহী জুড়ে ভোগান্তি

রাজশাহী অফিস : অব্যাহত গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিতে রাজশাহীজুড়ে ভোগান্তির সৃষ্টি হয়েছে। আষাঢ়ের শুরু থেকে দিন-রাত সমসময় মুষলধারে বৃষ্টি পড়ছে। মৌসুমী বৃষ্টিপাতের কারণে কয়েকদিন সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত একবারেও দেখা নেই সূর্যের।  এর মধ্যে বৃষ্টিতে বিপাকে পড়েছেন অফিসগামী, স্কুলের শিক্ষার্থী, দিনমজুর খেটে খাওয়া মানুষ। বিশেষ করে রিকশা ও অটোচালকদের জীবনের তাগিদে বৃষ্টিতে ভিজে রাস্তায় বের হতে দেখা যায়।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নগরীর বিভিন্ন এলাকা ছাড়াও আশেপাশের গ্রামগঞ্জেও অবিরাম ধারায় ঝরছে বৃষ্টি। বৃষ্টির পানিতে গ্রামের রাস্তা-ঘাট কর্দমাক্ত হয়ে উঠছে। পানি জমতে শুরু করেছে ফসলের মাঠে। রাজশাহী আবহাওয়া অফিসের পর্যবেক্ষক নজরুল ইসলাম বলেন, আরো দুইদিন বৃষ্টিপাত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এদিকে এ বৃষ্টিতে শহরের বিভিন্ন অলিতে গলিতেও পানি জমতে থাকে। বৃষ্টিপাতে তাৎক্ষণিক মানুষের স্বাভাবিক কর্মকা- ব্যাহত হলেও শ্রাবণের ধারাকে সানন্দে গ্রহণ করছে অনেকেই।
সাইকেল আরোহীর মৃত্যু
রাজশাহীর তানোর উপজেলায় বালুবাহী ট্রাকের ধাক্কায় সাইকেল আরোহীর মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তানোর পৌর চাপড়া এলাকায় এ দুর্ঘটান ঘটে। নিহত সাইকেল আরোহী হলেন- তানোরে কামারগা ইউনিয়নের পারিশ গ্রামের সংকর কুমার দাসের ছেলে সাধন কুমার দাস (৩২)। তানোর থানা পুলিশ জানায়, সকালে সাধন বাড়ি থেকে তানোর আসছিলেন। পথে চাপড়ায় এলাকায় বালুবাহী ট্রাকের ধাক্কায় নিহত হন। পরে তার লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়। বগুড়া ট-০২-০৪১৯ নম্বরের ট্রাকটি কামারগা বাজার থেকে আটক করা হয়েছে। ট্রাকের ড্রাইভার ও হেলপার পলাতক রয়েছে। সাধনের পরিবারকে খবর দেয়া হয়েছে। তারা থানায় আসলে লাশের বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে বলে এই কর্মকর্তা জানায়।
প্রতিবন্ধী শিশু নিখোঁজ
রাজশাহীর বাঘা উপজেলার মীরগঞ্জ হরিরামপুরের বুদ্ধি প্রতিবন্ধী শিশু জীবন আলী (১১) রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ রয়েছে। গত ৮দিন আগে সকালে বাড়ি থেকে খেলতে বের হয়ে আর বাড়ি ফিরে আসেনি। পরিবারের পক্ষ থেকে অনেক খোঁজাখুজি করেও না পেয়ে অবশেষে পুলিশের দারস্থ হয়েছেন। গত ২১ জুলাই বাঘা থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেছেন জীবনের দাদা সিদ্দিক আলী। এরপরও তার কোনো সন্ধান পায়নি পুলিশ।
নিখোঁজ জীবনের দাদা সিদ্দিক আলী জানান, ১৭ জুলাই সকালে প্রতিদিনের মতো জীবন বাড়ির পাশে খেলাধুলা করতে বের হয়। এসময় জীবনের বাবা বাহাদুর চারঘাট উপজেলায় ধান কাটার কাজে ছিলেন। সকাল থেকে দুপুর গড়ালেও জীবন বাড়িতে না ফেরায় খোঁজাখুজি শুরু হয়। কয়েকদিন আত্মীয়-স্বজন ও পরিচিতদের বাড়িতে খোঁজ করেও তাকে পাওয়া যায়নি। অবশেষে বাঘা থানায় জীবনের নিখোঁজ হাওয়ার খবর জানিয়ে সাধারন ডায়েরী করা হয়।তিনি বলেন, বুদ্ধি প্রতিবন্ধী জীবনের বয়স যখন তিন মাস তখন তার মাও রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হন। আজও তার সন্ধান মেলেনি। এর পর থেকে জীবন তার কাছেই থাকতেন।তিনি বলেন, বাড়ি থেকে বের হওয়ার সময় জীবনের গায়ে জিন্সের প্যাট ও সাদা গেঞ্জি পরা ছিল। তার উচ্চতা আনুমানিক ৫ফিট ৩ ইঞ্চি। জীবনের বাম হাতের কব্জির ওপরে পোড়া দাগ আছে। বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলী মাহমুদ বলেন, জীবনের সন্ধান চেয়ে বিভিন্ন থানায় ম্যাসেজ পাঠানো হয়েছে। তার খোঁজ চলছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ