ঢাকা, শনিবার 29 July 2017, ১৪ শ্রাবণ ১৪২8, ৪ জিলক্বদ ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

পজেটিভ রিপোর্ট দেবে বাংলাদেশে আসা অস্ট্রেলিয়ার প্রতিনিধি দল

স্পোর্টস রিপোর্টার : অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফরকে সামনে রেখে নিরাপত্তা ব্যবস্থা দেখতে বর্তমানে বাংলাদেশে আছে অস্ট্রেলিয়ার প্রতিনিধি দল। বিশেষ করে অস্ট্রেলিয়ার প্রতিনিধি দল এবার পর্যবেক্ষণ করেছে আসন্ন সিরিজের লজিস্টিক সাপোর্ট। তবে ঢাকা ও চট্টগ্রাম ভেন্যু পরিদর্শন করে এবং আয়োজকদের সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থার ছক দেখে সন্তুষ্ট অস্ট্রেলিয়ার পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধি দল। অস্ট্রেলিয়ায় ফিরে গিয়ে বাংলাদেশের নিরাপত্তা ও লজিস্টিক সাপোর্ট নিয়ে স্মিথ-ওয়ার্নারদের ‘পজেটিভ রিপোর্ট’ দেবে প্রতিনিধি দলটি। অস্ট্রেলিয়ার প্রতিনিধি দলটির সদস্যরা হলেন- ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সিনিয়র ম্যানেজার টিম অপারেশন্স অ্যাডাম ফ্রেশার, ম্যানস টিম ম্যানেজার গেভিন ডুভে, সিকিউরিটি অ্যান্ড অ্যান্টিকরাপশন ম্যানেজার শন ক্যারল, ম্যানস টিম সিকিউরিটি ম্যানেজার ফ্রাঙ্ক ডিমাসি এবং অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিনিধি নিকোলাস চার্লস পেলিসার কোটনি। গতকাল চট্টগ্রামের জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়াম পরিদর্শন করে অস্ট্রেলিয়ার প্রতিনিধি দল। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার ম্যানস টিম ম্যানেজার গেভিন ডুভে বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়ার বাংলাদেশ সফর উপলক্ষে আয়োজকদের নিরাপত্তা ব্যবস্থার পরিকল্পনা দেখে আমরা সন্তুষ্ট। নিরাপত্তাজনিত  কোনো বিষয় নিয়ে আমাদের আপত্তি নেই। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের জন্য ঢাকা ও চট্টগ্রামের  ভেন্যুর প্রস্তুতি ও সার্বিক সুযোগ-সুবিধা দেখেও আমরা খুশি। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে ধন্যবাদ। ঘরের মাঠে টেস্ট সিরিজ আয়োজনে কোনো ধরনের কমতি রাখেনি বিসিবি। দেশে ফিরে আমরা অস্ট্রেলিয়ার বাংলাদেশ সফরের ব্যাপারে পজেটিভ রিপোর্টই দেব। আশা করছি, ঠিক সময়ই বাংলাদেশ সফরে আসবে স্মিথ-ওয়ার্নাররা। এই সফর নিয়ে কোনো বাধা দেখছি না।’  বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে ওই প্রতিনিধি দলের সঙ্গে ছিলেন ন্যাশনাল ম্যানেজার আবদুল বাতেন, ক্রিকেট অপারেশন্স ম্যানেজার সাব্বির খান, বিসিবির সিকিউরিটি প্রধান মেজর ইমাম এবং চট্টগ্রাম জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের ভেন্যু ম্যানেজার ফজলে বারী খান রুবেল। দুটি ম্যাচের টেস্ট সিরিজ  খেলতে অস্ট্রেলিয়া দল বাংলাদেশে আসার কথা ১৮ আগস্ট।  টেস্ট মাঠে গড়ানোর আগে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে অস্ট্রেলিয়া। প্রস্তুতি ম্যাচটা দুই দিনের। ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে এই ম্যাচটি গড়াবে ২২ আগস্ট। চলবে ২৩ আগস্ট পর্যন্ত। টেস্টের লড়াইটা শুরু হবে ২৭ আগস্ট। মিরপুর  শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে গড়াবে প্রথম টেস্ট। ম্যাচটি শেষ হবে ৩১ আগস্ট। দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে। ৪ সেপ্টেম্বর শুরু হয়ে চলবে ৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ