ঢাকা, মঙ্গলবার 01 August 2017, ১৭ শ্রাবণ ১৪২8, ৭ জিলক্বদ ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মিথ্যাচার বন্ধ করে সুন্দরবন বিনাশী রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র বাতিল করুন

স্টাফ রিপোর্টার : মিথ্যাচার ও একগুঁয়েমি বন্ধ করে সুন্দরবন বিনাশী রামপাল তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র বাতিল করতে সরকারকে ফের দাবি জানিয়েছে তেল-গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি। উক্ত কমিটির আহ্বায়ক প্রকৌশলী শেখ মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ এবং সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ গতকাল সোমবার এক যুক্ত বিবৃতিতে এ দাবির পূনরুচ্চারন করেন। 

বিবৃতিতে রামপাল ইস্যুতে সরকারের গোয়ার্তুমীর সমালোচনা করে বলা হয়, ইউনেস্কো অধিবেশনের সিদ্ধান্ত আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশের মাধ্যমে সুন্দরবন বিনাশী রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র নিয়ে সরকারের মিথ্যাচার, একগুঁয়েমী এবং প্রতারণার ন্যাক্কারজনক চিত্র স্পষ্ট হলো। জনগণের অর্থ খরচ করে দলেবলে ইউনেস্কোকে প্রভাবিত করবার একাধিক ঘোষণার পর সরকার থেকে বলা হয়, রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপন সম্পর্কে ইউনেস্কো তার আপত্তি প্রত্যাহার করেছে। 

কিন্তু ইউনেস্কোর প্রকাশিত সিদ্ধান্তে স্পষ্টতই দেখা যাচ্ছে (১) কৌশলগত পরিবেশগত সমীক্ষা (এসইএ) না হওয়া পর্যন্ত সুন্দরবন পাশ্ববর্তী এলাকায় কোন ধরনের শিল্প বানিজ্যিক স্থাপনা করা যাবে না। বলা বাহুল্য যে রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র এ ধরনের স্থাপনার সংজ্ঞার অন্তর্ভুক্ত। এবং (২) রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র নিয়ে ইউনেস্কো সমীক্ষা দলের সিদ্ধান্ত পূর্ণ বাস্তবায়ন করতে হবে। এই সিদ্ধান্ত ছিল স্পষ্ট সুন্দরবন রক্ষার জন্য এই বিদ্যুৎকেন্দ্র অবশ্যই বন্ধ অথবা সুন্দরবন এলাকা থেকে সরাতে হবে। 

বিবৃতিতে ইউনেস্কোর ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ কমিটির ৪১তম সেশনের সিদ্ধান্তগুলো তুলে ধরে সরকারের একগুঁয়েমী ত্যাগ করে বৈজ্ঞানিক বিশ্লেষণ, বিশেষজ্ঞ মত ও ক্রমবর্ধমান জনমতের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে অবিলম্বে রামপাল চুক্তি বাতিলসহ সুন্দরবনবিনাশী বনগ্রাসী সব তৎপরতা বন্ধ এবং সেইসঙ্গে ‘সুন্দরবন নীতিমালা’ গ্রহণ করে এর বিকাশে সবধরনের উদ্যোগ গ্রহণ করতে আবারো দাবি জানিয়েছে তেল-গ্যাস-খনিজ স¤পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ