ঢাকা, মঙ্গলবার 01 August 2017, ১৭ শ্রাবণ ১৪২8, ৭ জিলক্বদ ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

আড়াই কোটি টাকা নিয়ে নিরুদ্দেশ সুমন তালুকদার আটক

সরিষাবাড়ী (জামালপুর) সংবাদদাতা : জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে মেসার্স লাইলা এন্টারপ্রাইজের নামে ৩০ হাজার টাকায় আবাসন তৈরী করে দেওয়ার নামে আড়াই কোটি টাকা নিয়ে নিরুদ্দেশ সুমন তালুকদারকে আটক করেছে পুলিশ। ঢাকার মিরপুর থেকে ওই প্রতারককে আটক করে গত বৃহস্পতিবার রাতে সরিষাবাড়ী থানায় আনা হয়। প্রতারক রিফাত হোসেন সুমন তালুকদার মেসার্স লাইলা এন্টারপ্রাইজের পরিচালক ও পৌর ছাত্রদলের সহ - সভাপতি বলে জানা গেছে। এলাকাবাসী ও পুলিশ সুত্রে জানা যায়, সরিষাবাড়ী উপজেলার শিমলাবাজার ইস্পাহানী এলাকার মৃত আব্দুল আজিজের পুত্র রিফাত হোসেন ৩০ হাজার টাকায় টিনসেড ঘর তৈরী করে দেয়ার নামে মেসার্স লাইলা এন্টারপ্রাইজ নামে একটি কোম্পানী খুলে। এ অফারটি লুফে নিতে সহায়সম্বলহীন এলাকাবাসী হুমড়ি খেয়ে প্রতারকের হাতে ৩০ হাজার টাকা করে তুলে দেয়। প্রতারক সুমন নামে মাত্র কিছু টিনসেড ঘর তুলে এলাকায় বিশ্বাস স্থাপন করে। তিনি ওই কোম্পানীর নামে জামালপুর ও শেরপুর জেলায় কাজ শুরু করে দুই জেলা থেকে প্রায় এক হাজার ঘর তৈরীর নামে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়। এছাড়া এলাকার অনেক সাধারণ মানুষের কাছ থেকে ধার দেনা করে গত জানুয়ারি মাসে তিনি  উধাও হয়ে যায়। পরে পৌরসভার শিমলাপল্লী এলাকার মুকুল মিয়া নামে এক ব্যক্তি প্রতারণা ও টাকা আত্মসাতের মামলা করে। সুমন তালুকদারের নামে প্রতারণা ও টাকা আত্মসাতের মামলায় দুটি ওয়ারেন্ট দেয় কোর্ট। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত বৃহস্পতিবার ঢাকার মিরপুর-১২ এলাকায় সরিষাবাড়ী থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে ওই দিন রাতেই সরিষাবাড়ীতে নিয়ে আসা হয়। ভূরারাবড়ী গ্রামের আনিছুর রহানমান জানান, ঘর তৈরির কথা বলে ২২ জনের নিকট থেকে ৩০ হাজার টাকা করে নিয়ে প্রতারককে দিয়েছিলাম। কিন্তু কাজ না করে সে পালিয়ে যান। শিমলাপল্লী গ্রামের নয়ন মিয়া জানান, প্রতারক সুমন ধার বাবদ ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা নিয়েছে তা না দিয়ে পালিয়ে যায়। এ ব্যাপারে সরিষাবাড়ী থানার সেকেন্ড অফিসার ইদ্রিস হোসাইন আটক করার বিষয়টির সত্যতা স্বীকার করে জানান, সুমনকে গত শুক্রবার সকালে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ