ঢাকা, বৃহস্পতিবার 03 August 2017, ১৯ শ্রাবণ ১৪২8, ৯ জিলক্বদ ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে চারজন আহত

 

সিলেট ব্যুরো : শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে চারজন আহত হয়েছে। গত মঙ্গলবার রাতে হলের কক্ষ দখলকে কেন্দ্র করে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রহুল আমিন অনুসারী যুগ্ম সম্পাদক মৃন্ময় দাশ ঝুটনের মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়। আহতদের মধ্যে সমাজবিজ্ঞান বিভাগের ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী নাঈম ইসলাম ও নৃবিজ্ঞান বিভাগের ১ম বর্ষের আবু হেনাকে রাতেই সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

হল সূত্রে জানা যায়, গত মঙ্গলবার রাত দেড়টা থেকে সাড়ে তিনটা পর্যন্ত প্রায় দুই ঘন্টাব্যাপী বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে থেমে থেমে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ৫০০৪ এবং ৫০১১ নং কক্ষ দখলকে কেন্দ্র শাখা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রুহুল আমিন অনুসারী ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজিদুল ইসলাম সবুজের অনুসারীদের মধ্যে দফায় দফায় ইট-পাটকেল ছোড়াছুড়ির ঘটনা ঘটে। এসময় উভয় পক্ষের চারজন আহত হন। মৃন্ময় দাশ ঝুটন বলেন- সবুজ, সাঈদ ও তারেকের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী সশস্ত্র অবস্থায় বঙ্গবন্ধু হলের বসবাসরত লিঙ্কন ও আকাশকে রুম থেকে বের হয়ে যেতে হুমকি দেয়। এসময় তারা ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে, আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে গুলী ছোড়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে। তারা আমার মোটরসাইকেলটিও ভাঙচুর করে।

এদিকে এ বিষয়টি অস্বীকার করেছেন সবুজ। তিনি বলেন- ঘটনার সময় তিনি ক্যাম্পাসের বাইরে ছিলেন। মারামারির খবর পেয়ে তিনি ক্যাম্পাসে যান। বঙ্গবন্ধু হলে কক্ষ নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় তিনি বা তার গ্রুপের কোনো নেতাকর্মী জড়িত নয়। এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রুহুল আমিন বলেন, ‘ভুল বোঝাবুঝির কারণেই সংঘর্ষ হয়েছিল। বর্তমানে বিষয়টি মিমাংসা হয়ে গেছে। 

জালালাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম বলেন, সংঘর্ষ এড়াতে ক্যাম্পাসে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. এসএম হাসান জাকিরুল ইসলাম বলেন, অভিযোগের প্রেক্ষিতে ও হলের সিসিটিভি ফুটেজ দেখে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ