ঢাকা, শনিবার 19 October 2019, ৪ কার্তিক ১৪২৬, ১৯ সফর ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

ভিসি প্যানেলের কার্যক্রম স্থগিত

অনলাইন ডেস্ক : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি নির্বাচনের জন্য সিনেটের মনোনীত তিন সদস্যের প্যানেলের পরবর্তী সব ধরনের কার্যক্রম স্থগিত করেছেন আপিল বিভাগ।

আজ বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের আপিল বিভাগ এ আদেশ দেন। বেঞ্চের অপর দুই বিচারপতি হলেন সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ও মির্জা হোসাইন হায়দার।

ভিসি প্যানেল নির্বাচনের জন্য সিনেটের বিশেষ অধিবেশন ডাকার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে একটি রিটের শুনানি শেষে এ আদেশ দেন আপিল বিভাগ। একই সঙ্গে আদালত রিটটি চার সপ্তাহের মধ্যে নিষ্পত্তিরও আদেশ দিয়েছেন। এ সময় দায়িত্ব পালন করবেন বর্তমান ভিসি  উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক।

বাদীপক্ষের আইনজীবী ব্যারিস্টার রোকনউদ্দিন মাহমুদ গণমাধ্যমকে বিষয়টি জানিয়েছেন।

গত ২৯ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ভিসি নির্বাচনের জন্য প্যানেলের তিন সদস্য হলেন গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক এবং বর্তমান উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক ড. মো. কামাল উদ্দীন এবং থিওরিটিক্যাল অ্যান্ড কম্পিউটেশনাল কেমিস্ট্রি বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. আবদুল আজিজ।

আদালত বলেছেন, কোনো ধরনের মুলতবি ছাড়াই হাইকোর্টে রিট আবেদনের ওপর শুনানি করতে হবে। রিটের বিবাদীপক্ষ (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়) এক সপ্তাহের মধ্যে রুলের বিষয়ে হলফনামা আকারে বক্তব্য দেব। আর তিন দিনের মধ্যে রিট আবেদনকারী পক্ষ জবাব দেব।

আদালতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী আবদুল মতিন খসরু। রিট আবেদনকারীদের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী রোকন উদ্দিন মাহমুদ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি নির্বাচনে তিন সদস্যের প্যানেল মনোনীত করতে গত ২৯ জুলাই সিনেটের বিশেষ সভা ডাকা হয়। ওই বিশেষ সভার জন্য গত ১৬ জুলাই সিনেট সদস্যদের চিঠি পাঠান বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার।

সিনেটের বিশেষ সভার নোটিশের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১২ জন শিক্ষকসহ ১৫ জন রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট রিট আবেদন করেন। রিটের ওপর গত ২৪ জুলাই শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট রুলসহ নোটিশের কার্যকারিতা স্থগিত করেন।

হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত চেয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ চেম্বার বিচারপতির আদালতে আবেদন করেন। এই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গত ২৬ জুলাই চেম্বার বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত করেন। একই সঙ্গে আবেদনটি আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে শুনানির জন্য পাঠিয়ে দেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ