ঢাকা, মঙ্গলবার 08 August 2017, ২৪ শ্রাবণ ১৪২8, ১৪ জিলক্বদ ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

পল্লবীর মাদরাসায় শিশুর মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর পরøবীর একটি মাদরাসা থেকে নয় বছর বয়সী এক শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে, যাকে হত্যা করা হয়েছে অভিযোগ করেছে পরিবারের সদস্যরা। নিহত হাফিজুর রহমান কাওসারকে দুই সপ্তাহ আগে মিরপুর ১১ নম্বর সেকশনে পরøবীর ৫ নম্বর রোডের ৫ নম্বর বাড়িতে মারকাজুল তারতিলিন কোরান নামের ওই মাদরাসায় ভর্তি করা হয়েছিল। তার বাবা দুলাল খান নিউমার্কেট এলাকায় ফুটপাতে ব্যবসা করেন।

গতকাল সোমবার সকালে ওই মাদরাসার অধ্যক্ষ মো. জুনায়েদ বিন ইসহাকের রেস্ট রুমের বিছানা থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয় বলে জানিয়েছেন পল্লবী থানার ওসি দাদন ফকির।

কাওসার আত্মহত্যা করেছে বলে মাদরাসা থেকে বলা হলেও ছেলেকে হত্যা করা হয়েছে অভিযোগ করেন তার বাবা দুলাল খান। চার মেয়ের পর একমাত্র ছেলের মৃত্যুর খবর মাদরাসার কোনো শিক্ষক বা শিক্ষার্থী তাকে দেয়নি অভিযোগ করে তিনি বলেন, “পাশে এক লোকের মাধ্যমে ছেলের মৃত্যুর খবর পেয়ে মাদরাসায় গিয়ে দেখি সেখানে অনেক আগে থেকে পুলিশ এসে কাজ করছে।”

 রোববার রাতের কোনো এক সময় তার ছেলেকে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি করে দুলাল খান বলেন, “আমার ছেলে আত্মহত্যা করতে পারে না। এই শিশু কি জন্যেই বা আত্মহত্যা করবে।”

তবে আত্মহত্যার কোনো নমুনা পুলিশও পায়নি বলছেন পল্লবীর ওসি দাদন ফকির। তিনি বলেন, “শিশুটি মাদরাসার একটি শৌচাগারে গলায় গামছা পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে দাবি করা হচ্ছে। সেখানে তাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে অন্য শিক্ষার্থীরা উদ্ধার করে অধ্যক্ষের রেস্ট রুমে নিয়ে আসে বলে আমাদের জানিয়েছে কয়েক শিক্ষার্থী। “তবে আত্মহত্যার কোনো নমুনা পাওয়া যায়নি। পুরো বিষয়টি রহস্যজনক। আত্মহত্যার কথা বলা হলেও গলায় কোনো চিহ্ন নেই বা পরিস্থিতি সে রকম দেখা যায়নি।”

কাওসারের মাথায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে জানিয়ে ওসি বলেন, “লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনের উপর তার মৃত্যুর কারণ নির্ভর করছে।”

এ ঘটনায় মাদরাসার অধ্যক্ষকে নিয়ে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করছে জানিয়ে পুলিশ কর্মকর্তা দাদন ফকির বলেন, “আমরা সকল চিন্তা মাথায় রেখে তদন্ত করছি। প্রয়োজনে সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হবে।”

হানিফ ফ্লাইওভারে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় যুবকের মৃত্যু

যাত্রাবাড়ী হানিফ ফ্লাইওভারে মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায় এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। মো. সেলিম নামে ৩০ বছর বয়সী ওই যুবককে গতকাল সোমবার বেলা ১২টার দিকে গুরুতর অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সূত্রাপুরে প্রিন্টিং প্রেসের ব্যবসায় জড়িত সেলিম ছিলেন দুই সন্তানের জনক। ব্যবসার কাজে মোটর সাইকেল নিয়ে তিনি মাতুয়াইলে যাচ্ছিলেন বলে তার বড় ভাই মো. আফতাব সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।

ঢাকা মেডিকেল ফাঁড়ি পুলিশের এসআই মো. বাচ্চু মিয়া জানান, মো. আলী আহম্মেদ নামের এক ব্যক্তি সেলিমকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। “সেলিম নিয়ন্ত্রণ হারালে তার মোটরসাইকেল ফ্লাইওভারের রেলিংয়ের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে ছিটকে পড়ে। সেলিমকে আহত অবস্থায় পেয়ে আলী আহম্মেদ নামের ওই ব্যক্তি তাকে নিয়ে আসেন। সেলিমের শরীরের বিভিন্নস্থানে জখমের চিহ্ন ছিল।”

চার ভাই পাঁচ বোনের মধ্যে সেলিম দ্বিতীয় ছিলেন বলে তার ভাই আফতাব জানিয়েছেন।

বাসের ছাদ থেকে পড়ে একজনের মৃত্যু

মধ্যবাড্ডা পোস্ট অফিসের গলির সামনের রাস্তা থেকে রুস্তম আলী (৩৫) নামের এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে বাড্ডা থানা পুলিশ। তিনি ভোরে একটি চলন্ত বাসের ছাদ থেকে পড়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান। গতকাল সোমবার ভোর ৫টার দিকে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে পাঠায়। নিহত রুস্তম জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি উপজেলার ঢাকরপাড়া গ্রামের ইদ্রিস আলীর ছেলে।

বাড্ডা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নওশাদ আলী জানায়, ভোরে একটি চলন্ত বাসের ছাদ থেকে পড়ে ঘটনাস্থলেই মারা যায় রুস্তম। তিনি আরও জানান, মোবাইল ফোনের মাধ্যমে তার পরিচয় শনাক্ত করা হয়েছে। পরিবারকে বিষয়টি অবহিত করা হয়েছে।

অস্ত্রসহ ৫ ভুয়া ডিবি আটক

মতিঝিল এলাকা থেকে পাঁচ ভুয়া গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশকে আটক করা হয়েছে। তাদের কাছ থেকে পিস্তল, গুলী, হ্যান্ডকাফ, ওয়াকিটকি উদ্ধার করা হয়েছে। রোবিবার রাতে মতিঝিল থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করে। গতকাল সোমবার সকালে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) উপ-কমিশনার (ডিসি, মিডিয়া) মো. মাসুদুর রহমান জানান, আটকদের কাছ থেকে পিস্তল, গুলী, হ্যান্ডকাফ, ওয়াকিটকি ও একটি প্রাইভেট কার উদ্ধার করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ