ঢাকা, মঙ্গলবার 08 August 2017, ২৪ শ্রাবণ ১৪২8, ১৪ জিলক্বদ ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

গিনিজ বুক অফ রেকর্ডসে নাম উঠাতে সাঁতরাচ্ছেন ক্ষিতীন্দ্র চন্দ্র বৈশ্য

ফুলপুর (ময়মনসিংহ) সংবাদদাতা : গিনিজ বুক অফ রেকর্ডসে নাম উঠাতে ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার সরচাপুর থেকে কংশ নদী দিয়ে ১৪৬ কিলোমিটার একক দুরপাল্লার সাতাঁর শুরু করেছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা ক্ষিতীন্দ্র চন্দ্র বৈশ্য। হাজার হাজার উৎসুক জনতার উপস্থিতিতে তিনি শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টায় কংশ নদীতে সাঁতার শুরু করেন। ময়মনসিংহের ফুলপুর, হালুয়াঘাট, ধোবাউড়া, নেত্রকোনা জেলার পূর্বধলা, দুর্গাপুর, নেত্রকোনা সদরসহ ১০ উপজেলা হয়ে কংশ নদী দিয়ে ১৪৬ কিলোমিটার সাঁতরে রোববার নিজ মদন উপজেলার মগরা ব্রিজে উঠবেন বলে আশা করা যাচ্ছে। তাকে অনুস্মরণ করে ২টি নৌকায় নিজ স্বজন, চিকিৎসক ও সাংবাদিকসহ বিভিন্ন লোকজন যাচ্ছেন। সাঁতার অবস্থায় দেখতে হাজার হাজার উৎসুক জনতা রাতদিন নদীর দু’পাশে দাঁড়িয়ে ভীড় করছেন। 
ফুলপুর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়ির যুগ্ম আহবায়ক এমএ হাকিম সরকার এবং নেত্রকোনা জেলার মদন পৌরসভার সাবেক মেয়র মদন নাগরিক কমিটির আহবায়ক দেওয়ান মোদাচ্ছের হোসেন এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, সংসদ সদস্য শরীফ আহমেদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ রাশেদ হোসেন চৌধুরী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়ির যুগ্ম আহবায়ক অধ্যাপক মোঃ হাবিবুর রহমান, ফুলপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, সার ডিলার সমিতির সভাপতি গোলাম মুর্তুজা তালুকদার (লাল মিয়া) প্রমুখ।
তার সাথে যাওয়া সাংবাদিক প্রতিনিধি ফুলপুর প্রেস ক্লাব সিনিয়র সহ-সভাপতি মোঃ বিল্লাল হোসাইন প্রেস ক্লাব সভাপতি নাজিম উদ্দিনকে জানান, ক্ষিতীশ চন্দ্র বৈশ্য সাঁতরে শনিবার বিকেল ৫ টায় নেত্রকোনা জেলার পূর্বধলা উপজেলায় পৌঁছেছেন। ক্ষিতীশ চন্দ্র বৈশ্য ভাল আছে। এছাড়াও তিনি তার ফেসবুক একাউন্টে সব সময় ধারাভাষ্য প্রচার করে যাচ্ছেন।
খিতীশ চন্দ্র বৈশ্য ১৯৭০ সাল থেকে বিভিন্ন সাঁতার প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে দেশ বিদেশের স্বর্ণ ও রৌপ্য পদক অর্জন করেন। তার সাঁতারের কৃতিত্ব স্বরূপ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৫ সালে গণভবনে রোপার নৌকা দিয়ে পুরস্কৃত করেন। এছাড়া ১৯১৪ সালে নেত্রকোনায় শেষ একাদশ প্রদর্শণী হিসেবে ২৪ ঘন্টা ৫ মিনিট সাঁতারের রেকর্ড গড়েন। এটাই হয়তো হবে তার জীবনের শেষ সাঁতার।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ