ঢাকা, বৃহস্পতিবার 10 August 2017, ২৬ শ্রাবণ ১৪২8, ১৬ জিলক্বদ ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নিয়মিত ম্যাচের আশ্বাস

স্পোর্টস রিপোর্টার : আইসিসির ফিউচার ট্যুর প্রোগ্রাম অনুযায়ী ২০১৫ সালের অক্টোবরে বাংলাদেশ সফরে আসার কথা ছিল অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের। টাইগারদের সঙ্গে খেলার কথা ছিল দুটি টেস্ট। কিন্তু সে সময় নিরাপত্তার অজুহাতে বাংলাদেশ সফর স্থগিত করে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। এফটিপি অনুযায়ী চলতি বছরের আগস্টে দুই টেস্ট ও তিন ওয়ানডে খেলতে অস্ট্রলিয়া যাওয়ার কথা বাংলাদেশের। তবে  এবার বকেয়া সিরিজ খেলতে আসছে অসিরা। ‘মিচুয়াল আন্ডারস্ট্যান্ডিং’ করে অস্ট্রেলিয়া এবার বাংলাদেশ সফরে আসছে। ঘরের মাঠে সিরিজ আয়োজন করতেও রাজী বিসিবি।  বাংলাদেশের সফরটি যেকোনো সময় আয়োজন করতে পারে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। দুই বোর্ড সময় বের করে অস্ট্রেলিয়ায় সিরিজটি আয়োজন করবে। বিসিবির প্রত্যাশা এবারের সফরের পর নিয়মিত বাংলাদেশ সফর করবে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। নিরাপত্তা, সুযোগ-সুবিধা এবং ক্রিকেটারদের পারফরম্যান্স এতে বড় ভূমিকা রাখবে বলে বিশ্বাস করে বিসিবি। এ বিষয়ে বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন গণমাধ্যমে বলেন, শুধু অস্ট্রেলিয়া না, সব দলের সঙ্গেই আমাদের শিডিউল করা আছে। এফটিপির মাধ্যমেই এটা হয়েছে। এফটিপি একটা কমিটমেন্ট। এরপর থেকে নির্ধারিত সময়ে অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশ সফর করবে। দুই বোর্ডের সঙ্গে এখন পর্যন্ত এটাই চূড়ান্ত রয়েছে। বোর্ডের সঙ্গে খেলোয়াড়দের বেতন-ভাতা নিয়ে দ্বন্দ্ব শেষ হওয়ায় স্বস্তিতে রয়েছে বিসিবি। নিজামউদ্দিন বলেন, অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ড ও খেলোয়াড়দের মধ্যে ঝামেলা শেষ হওয়ায় আমাদের একটা কমফোর্টের জায়গাতো আছেই। যেহেতু কিছু টুকটাক বিষয় অনিশ্চয়তার মধ্যে ফেলে দিয়েছিল সেই দিক থেকে স্বস্তির ব্যাপার যে নির্ধারিত সময়ে অস্ট্রেলিয়া দল আসছে। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল ১৮ আগস্ট ঢাকায় পা রাখলেও তাদের আসার আগেই ক্রিকেট অস্ট্র্রেলিয়ার প্রতিনিধি দল ঢাকায় চলে আসবে। সফরকারী দলের ক্রিকেটারদের সুযোগ-সুবিধাগুলো দেখভাল করতেই তারা আগেভাগে ঢাকায় পা রাখবে। দুই দলের প্রথম ম্যাচটি হবে মিরপুরে। অস্ট্রেলিয়াকে আতিথেয়তা দেওয়ার জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত মিরপুর। এ নিয়ে নিজামউদ্দিন চৌধুরী বলেন, মিরপুর এবং চট্টগ্রাম ভেন্যু সম্পূর্ণ তৈরি। এখন শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি চলছে। মাঠের পরিচর্যার কাজগুলো মূলত চলছে। প্রস্তুতি ম্যাচের জন্য ফতুল্লাতেও কাজ চলছে। আমরা বিকল্প হিসেবে বিকেএসপিকেও প্রস্তুত রাখছি। সফর চলাকালিন সময়ে দুই দল ঢাকা ও চট্টগ্রামে হোটেল র‌্যাডিসনে অবস্থান করবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ