ঢাকা, বৃহস্পতিবার 10 August 2017, ২৬ শ্রাবণ ১৪২8, ১৬ জিলক্বদ ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

অজিদের বিপক্ষে স্পিনেই ভরসা বাংলাদেশের

স্পোর্টস রিপোর্টার : একটা সময় বাংলাদেশ ক্রিকেট দল  হোম কন্ডিশনের বাড়তি সুবিধা  কাজে লাগাতে পারতো না।  প্রতিপক্ষের শক্তি-দুর্বলতার কথা চিন্তা করে ফ্ল্যাট উইকেট বানিয়ে নিজেরাই রানপাহাড়ে চাপা পড়েছে অনেকবার। তবে দিন বদলেছে। গত অক্টোবরে ইংল্যান্ড সিরিজে সেটার প্রমাণও মিলেছে। নিজেদের শক্তির উপর আস্থা রেখে  স্পিনিং উইকেট বানিয়ে সাফল্য এসেছে। সে ধারাবাহিকতায় অস্ট্রেলিয়ার জন্যও অপেক্ষা করছে ঘূর্ণি উইকেট। মুশফিক বাহিনী স্মিথ-ওয়ার্নারদের স্পিন ঘূর্ণিতে ধসিয়ে দিতে প্রস্তুত বলে মনে করছে অজিরাও। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার ওয়েবসাইট ক্রিকেট ডটকম ডট এইউর বিশ্লেষণে উঠে এসেছে এমনটাই। গত অক্টোবরে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের দুটি টেস্টেই লড়াই হয়েছে হাড্ডাহাড্ডি। প্রথম টেস্টে ২২ রানে ম্যাচ হাতহাার পর দ্বিতীয় ম্যাচে ঘুরে দাঁড়িয়ে ইংলিশদের বিপক্ষে ১০৮ রানের জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। সিরিজের কোনও টেস্টই গড়ায়নি পাঁচদিন পর্যন্ত। বাংলাদেশি স্পিনারদের খেলতে হাসফাঁস করেছেন ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা। আর গত ফেব্রুয়ারিতে ভারতের বিপক্ষে একই অবস্থায় পড়তে হয়েছে অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যানদেরও। এশিয়ার মাটিতে স্পিন সহায়ক উইকেটে খেলতে খুব একটা অভ্যস্ত নয় অজিরা।  ভারতের বিপক্ষে বোর্ডার-গাভাস্কার ট্রফিটাও অস্ট্রেলিয়া খুইয়েছে ২-১ ব্যবধানে। তার আগে শ্রীলঙ্কার মাটিতে হয়েছে হোয়াইটওয়াশ। এসব বিবেচনা করেই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে স্পিন সহায়ক উইকেট চাচ্ছেন বাংলাদেশের স্পিনাররা। চট্টগ্রামে কন্ডিশনিং ক্যাম্পে বসে টাইগার কাপ্তান মুশফিকুর রহিমও বলেছেন, অবশ্যই আমরা স্পিন সহায়ক উইকেট চাই। অতীতে আমরা হোম কন্ডিশন কাজে লাগাতে পারিনি। কিন্তু দু-তিন বছর ধরে অবস্থার উন্নতি হয়ে আসছে। ইংলিশদের বিপক্ষে টেস্টে বাংলাদেশের আবিষ্কার মেহেদী হাসান মিরাজ। অভিষেকের দুই টেস্টে ১৯ উইকেট নিয়ে প্রায় একাই ধসিয়ে দিয়েছেন ২০ বছর বয়সী এ অলরাউন্ডার। ক্রিকেট ডটকম ডট এইউ অজিদের সাবধান করছে এই স্পিনারের বিষয়েও। সঙ্গে সাকিব আল হাসান আর তাইজুল ইসলামরা তো আছেনই। অজি সাবেকরাও সেটাই বলছেন, ওয়ার্নারদের স্পিন ঘূর্ণিতে ধসিয়ে দিতে পারে বাংলাদেশ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ