ঢাকা, সোমবার 24 September 2018, ৯ আশ্বিন ১৪২৫, ১৩ মহররম ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

চারা গাছের ভাসমান বাজার

অনলাইন ডেস্ক : পিরোজপুর জেলার স্বরূপকাঠী উপজেলার মাহমুদকাঠী গ্রামের খালে বহুকাল ধরে বসে নার্সারি বা চারাগাছের ভাসমান এক বাজার৷ দূরদূরান্ত থেকে পাইকাররা এ বাজারে আসেন গাছের চারা কিনতে৷

নার্সারির গ্রাম

স্বরূপকাঠীর অপরূপ সন্ধ্যা নদী থেকে পূর্ব দিকে বহমান স্বরূপকাঠী খালের দু’পাশে কয়েকটি গ্রাম৷ এখানকার অলঙ্কারকাঠী, মাহমুদকাঠী, সমুদয়কাঠী, আরামকাঠী, কামারকাঠী, জগন্নাথকাঠী, আকলম, আটঘর প্রর্ভতি গ্রামের সর্বত্রই চাষ হয় চারা গাছের৷

নানা রকম গাছ

স্বরূপকাঠী উপজেলার এ গ্রামগুলোতে উৎপাদন হয় সবধরণের গাছের চারা৷ দেশের দেশের সবচেয়ে বেশি গাছের চারার জোগান আসে স্বরূপাকাঠীর এসব গ্রাম থেকেই৷

খালের মোহনায় ভাসমান বাজার

মাহমুদকাঠীর ভাসমান এ বাজারটি বসে মাহমুদকাঠী গ্রামের তিন খালের মোহনায়৷ ক্রেতা-বিক্রেতাদের এ বাজারে তাই আসতে হয় নৌকাযোগে৷

ক্রেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ

পাইকারী ক্রেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে ছোট ছোট নৌকা বোঝাই করে চারা গাছ নিয়ে খালে উপর ঘুরে বেড়ান নার্সারি চাষীরা৷

পাইকারী ক্রেতার বাজার

মাহমুদ কাঠীর বাজারে চারা গাছ কিনতে পাইকাররা আসেন অপেক্ষাকৃত বড় ইঞ্জিন নৌকা নিয়ে৷ বিভিন্ন রকম গাছ কিনে সেই নৌকা বোঝাই করে নেন তাঁরা৷

শুক্রবারের সকাল বেলার বাজার

মাহমুদকাঠীর ভাসমান এ চারা গাছের বাজার সপ্তাহের প্রতি শুক্রবার বসে৷ কাকডাকা ভোরে বাজার শুরু হয়ে সূর্যের তেজ বাড়ার আগেই হয়ে ওঠার আগেই বাজারটি শেষ হয়ে যায়৷

জমজমাট বাজার

মাহমুদকাঠীর চারা গাছের এ বাজার জমজমাট হয় মূলত বর্ষা মৌসুমে৷ সাধারণত আষাঢ়-কার্তিক মাসে বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে বৃক্ষ রোপণের ধুম পড়ে যায় বলে এ সময়ে বাজারটিও জমজমাট থেকে৷

ফলদ, বনজ আর ঔষধি গাছ

বর্ষা মৌসুমে মাহমুদকাঠীর বাজারে ফলদ, বনজ আর ঔষধি গাছের বিকিকিনিই বেশি হয়৷ তবে শীত মৌসুমে এ বাজারে প্রধানত বিক্রি হয় বিভিন্ন রকম ফুলের গাছ৷

কম দামে ভাল গাছ

দেশের অন্যান্য অঞ্চলের থেকে মাহমুদকাঠীর এ বাজারে চারা গাছের দাম অপেক্ষাকৃত অনেক কমে পাওয়া যায় বলে এ বাজারের প্রতি পাইকারদের আকর্ষণ বেশি৷

পর্যটন গন্তব্য

মাহমুদকাঠীর এ ভাসমান নার্সারির বাজার দিনে দিনে পর্যটকদের কাছেও জনপ্রিয় হচ্ছে৷

ভাসমান বাজার

মাহমুদকাঠীর ভাসমান বাজার থেকে চারাগাছ কিনে বড় ইঞ্জিন নৌকা বোঝাই করে ফিরছেন পাইকাররা৷ দেশের বিভিন্ন জায়গার হাট-বাজারে তাঁরা বিক্রি করবেন এ সব চারা গাছ৷ সূত্র: ডয়েচে ভেলে। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ