ঢাকা, বুধবার 16 August 2017, ০১ ভাদ্র ১৪২8, ২২ জিলক্বদ ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

শ্রীপুরে নবম শ্রেণীর ছাত্রী অপহৃত

শ্রীপুর (গাজীপুর) সংবাদদাতা: শ্রীপুর উপজেলার ইন্দ্রবপুর গ্রামের নবম শ্রেণীর এক ছাত্রী অপহরণের ২৮ দিন পার হলেও উদ্ধার হয়নি ওই শিক্ষার্থী। শিক্ষার্থীর বাবা মোঃ আলী হাসেন বাদী হয়ে গত ৯জুলাই একই গ্রামের আতিকুল ইসলামের ছেলে ফয়সাল (১৭) সহ আরো ৩ জনকে আসামী করে শ্রীপুর থানায় মামলা ধায়ের করে। ২৮দিন অতিবাহিত হলেও  এখনো কোনো আসামী গ্রেফতার হয়নি। এই ঘটনায় এলাকার সাধারণ মানুষের মনে তীব্র  ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।   
ভবানীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্রীকে গত ৬জুলাই রাতের আঁধারে কৌশলে বাড়ি থেকে অপহরণ করে স্থানীয় বখাটে ফয়সাল ও তার সহযোগীরা।
 অপহৃত ছাত্রীর স্বজনরা জানায়, ওই রাতে বাড়িতে কোনো পুরুষ মানুষ না থাকায় অপহরণকারীরা তাকে ঘর থেকে টেনে হিঁচড়ে গাড়িতে তুলে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়।
বিষয়টি অন্য কাউকে জানালে ছাত্রীর বাবাকে হত্যার পর লাশ গুম করা হবে বলেও চিহ্নিত ওই অপহরণকারীরা হুমকি দেয়।
মামলার বাদী আলী হোসেন জানান, স্কুলে যাওয়া আসার পথে প্রায় সময় ফয়সাল আহমেদ তার মেয়েকে নানা ধরণের অনৈতিক প্রস্তাব দিত। অপহরণের পর ফয়সালের পিতাসহ আত্মীয়রা তার মেয়েকে ফেরৎ দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে ২৮ দিন পার হলেও এখনও তার মেয়ের হদিস দিতে পারেনি।
এই নিয়ে এলাকায় কয়েকবার গ্রাম্য সালিশ বসা হলেও সুবিচার পায়নি ওই ছাত্রীর বাবা। অথচ ওই শিক্ষার্থীকে ফেরত দেওয়ার আশ^াস দিয়েও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।
পরিচয় গোপন রাখার শর্তে অপহৃত ওই শিক্ষার্থীর এক চাচাতো ভাই বলেন, সুনির্দিষ্ট তথ্য প্রমানাদি থাকার পরও পুলিশ কেন এখনও কোনো আসামী গ্রেফতার করতে পারেনি তা আমাদের বোধগম্য নয়।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আজহারুল ইসলাম বলেন, আসামীরা সবাই পলাতক। তথ্য প্রযুক্তির সহযোগিতায় অভিযুক্তদের গ্রেফতার অভিযানের পাশাপাশে অপহৃতকে উদ্ধারের চেষ্টা চালানো হচ্ছে।
শ্রীপুর থানার ওসি (অপারেশন) হেলাল উদ্দিন বলেন, মামলা হওয়ার পর থেকে অপহৃতকে উদ্ধার ও আসামীদের গ্রেফতার করতে প্রতিনিয়তই অভিযান চালানো হচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ