ঢাকা, বৃহস্পতিবার 17 August 2017, ০২ ভাদ্র ১৪২8, ২৩ জিলক্বদ ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মহাসড়কের কোটি কোটি টাকার জায়গা ভূমি দস্যু সিন্ডিকেটের দখলে

শাহজাহান, তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) সংবাদদাতা: হাটিকুমরুল বনপাড়া মহাসড়কের কোটি টাকার সরকারী জায়গা প্রভাবশালীদের  দখলে চলে গেছে। জায়গা দখলে নিয়ে বিভিন্ন স্থাপনা নির্মান করে চুক্তি ভিত্তিক ভাড়া দিয়ে প্রতি মাসে হাজার হাজার টাকা ফায়দা লুটছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সরকারী জায়গা দখলে নিয়ে স্থাপনা গড়ার পর কর্তৃ পক্ষ জবর দখলকারীদের উচ্ছেদের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছেন বলে কর্তৃ পক্ষ দাবি করেছেন। তবে অভিযোগ উঠেছে যে কতিপয় ভুমি দস্যু দের সাথে সরকারী এক শ্রেণীর কর্ম কর্তার সাথে সখ্যতা থাকায় সমস্যার প্রতিকার পাওয়া যাচেছনা। সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার খালকুলা বাজারে সরকারী জায়গা প্রভাবশালীরা দখলে নিয়ে  অবৈধভাবে স্থাপনা নির্মান করে  বাসা বাড়ী ও বিল্ডিং নির্মান করেছে। মান্নান নগর সমবয় ফিলিং স্টেশন (২ ) তেল পাম্পের এবং খালকুলা সমবয় পেট্্েরাল তেল পাম্পের মালিকরা জোরপুর্বক সরকারের এই জায়গা দবর দখলকরে  স্থাপত্য গড়ে তুলেছে। এলাকা বাসিরা জানান হাটিকুমরুল বন পাড়া মহাসড়কের খালকুলা বাজারে অবৈধ স্থাপনা গড়ে তোলায় জায়গা সংকীর্ণ হওয়ায় গাড়ী পার্কিং এর সময় প্রতি নিয়ত দুঘটনা ঘটছে । সিরাজগঞ্জের হাটিকুমরুল বনপাড়া মহাসড়কের রোড গোল চত্বর ,হরিণচড়া, দবিরগঞ্জ, খালকুলাবাজার, মহিষলুটি, মান্নান নগরে কোটি কোটি টাকার সরকারী জায়গা দখল ও অবৈধ স্থাপনা বাসা বাড়ী বিল্ডিং এবং দোকান পাট নির্মানকরেছে।
খালকুলা বাজারে আলহাজ মোহাম্মআদ আ: আজিজ, হাজী ওমর আলী হাজী আবু তালিব, মাদারী হাজী সহ অনেক প্রভাবশালী ব্যাক্তিবর্গ সরকারী জায়গা দখল করেভোগ করছেন। কোটি কোটি টাকার এ সম্পাদ গুলো এখন সিন্টিকেট ভুমি দস্যু চক্রের নিয়ন্ত্রনে রয়েছে । সুবিধা হাসিলের জন্য ভুমি দস্যুরা যে সরকার ক্ষমতায় আসে সেই সরকারের লোক হয়ে যায় । তাই প্রশাসন যতই প্রতিহতের চেষ্টা করুক জবর দখল কারী দের কিছুই করতে পারেনা বরং প্রতিবাদ কারী কর্মকতা রা ভুমি দস্যু সিন্টিকেটের কবলে পড়ে নানা হয়রানীর স্বীকার হন বলে এলাকা বাসীরা জানিয়েছেন। কোটি টাকার জায়গা বেদখল হলেও প্রশাসন অসহায় ও নির্বিকার । কতিপয় ভুমি দস্যুরা  খুবই শক্তিশালী তাই তাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করার সাহস তারা পাচ্ছে না। সিরাজগঞ্জ এস্কচেঞ্জ মনসুর রহমান জানান,অবৈধ্য দখলদারদের উচ্ছেদ করা হচ্ছে। ইতি মধ্যে জায়গা ছারের নোটিশ দেওয়া হয়েছে। সচেতন  মহল ভুমি দস্যু কবল থেকে সরকারী জায়গা  মুক্ত করে জান মালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকারের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ