ঢাকা, মঙ্গলবার 22 August 2017, ০৭ ভাদ্র ১৪২8, ২৮ জিলক্বদ ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

ডিএনডির পানি দ্রুত নিষ্কাশনের দাবিতে ঢাবি শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

সিদ্ধিরগঞ্জ (না:গঞ্জ) সংবাদদাতা : ডিএনডির পানি দ্রুত নিষ্কাশন করে ভয়াবহ জলাবদ্ধতা থেকে কয়েক লাখ অধিবাসীকে রক্ষার দাবিতে গতকাল সকালে মানববন্ধন করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। ঢাকা ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্টস এসোসিয়েশন অব সিদ্ধিরগঞ্জ-এর ব্যাপারে শিমরাইলস্থ ডিএনডি সেচ পাম্পের সামনে ৬০/৭০ জন ছাত্র এ মানববন্ধন করেন। আগামী ৭ দিনের মধ্যে পানি নিষ্কাশন করে সহনীয় পর্যায়ে আনা না হলে বিভিন্ন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সাথে নিয়ে বড় আন্দোলনে যাবেন বলে তারা ঘোষনা দেন। ছাত্রদের সাথে এসময় ভুক্তভোগি সচেতন অধিবাসীরাও এসে যোগ দেন।
এদিকে সকাল ১০টার দিকে নিজের অফিসে ঢুকতে গিয়ে ছাত্রদের তোপের মুখে পড়েন পাম্প হাউজের দায়িত্বরত উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী আব্দুল জব্বার। তার গাড়ী আটকে দেয় ছাত্ররা। এরপর তিনি গাড়ী থেকে নেমে আন্দোলনকারীদের সাথে কথা বলেন। এসময় ছাত্ররা তার কাছে জানতে চান, নিষ্কাশনের জন্য ছোট ২৫টি পাম্পের মধ্যে ৪/৫টি ছাড়া বাকিগুলো কেন চালানো হয় না? বড় ৪টি পাম্প কেন সব সময় চালু রাখা হচ্ছে না? জবাবে প্রকৌশলী তাদেরকে পাম্প বিকলসহ নিষ্কাশনের নানা সীমাবদ্ধতার কথা জানান। ছাত্ররা এসময় বলেন, আমরা আপনার মাধ্যমে সরকারের কাছে দাবী জানাচ্ছি পানি নিষ্কাশনের কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করে আগামী ৭ দিনের মধ্যে ডিএনডির কয়েক লাখ মানুষকে যেন পানিবন্দি অবস্থা থেকে মুক্তি দেয়া হয়। অন্যথায় ৭ দিন পর ডিএনডিতে বসবাসরত বিভিন্ন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে বড় আন্দোলনে যাবেন তারা। ওই প্রকৌশলী ছাত্রদের দাবির মুখে ঘোষণা দেন, যদি বৃষ্টি না হয় তাহলে ৭ দিনের মধ্যে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা তিনি করবেন।
মানববন্ধনে সংগঠনটির আহ্বায়ক বেলাল হোসেন, যুগ্ম আহ্বায়ক হাসিবুল আনোয়ার ও সদস্য সচিব ইকবাল হোসেন গণমাধ্যম ও প্রকৌশলীর সাথে কথা বলেন। 
মানববন্ধনের পর সকাল সাড়ে ১০টায় শিমরাইল পাম্প হাউজে গিয়ে দেখা গেছে, ডিএনডির ভিতরে পানির উচ্চতা ৩ দশমিক ৭৫ মিটার। এটা স্বাভাবিকের চেয়ে ১ দশমিক ২৫ মিটার বেশী। ৪৮ ঘন্টা আগেও পানির স্তর একই ছিল।
১২৮ কিউসেক সেচ ক্ষমতা সম্পন্ন ৪টি পাম্পের মধ্যে একটি পাম্প ৩৯ দিন ধরে বিকল হয়ে আছে। ওই পাম্পটি মেরামত করার পর মাঝখানে ২৬ জুলাই থেকে ৩১ জুলাই পর্যন্ত সচল ছিল। এরপর থেকে বিকল হয়ে আছে। এছাড়াও ছোট ২২টি পাম্পের মধ্যে মাত্র ৩টি পাম্প চালু রয়েছে। বাকী পাম্পগুলো বিকল হয়ে রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ