ঢাকা, বৃহস্পতিবার 24 August 2017, ০৯ ভাদ্র ১৪২8, ০১ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মোস্তাফিজ-সাকিবকে নিয়ে ‘ভীত’ ম্যাক্সওয়েল

স্পোর্টস রিপোর্টার : বাংলাদেশের বিপক্ষে আসন্ন টেস্ট সিরিজে ভালো করতে হলে মোস্তাফিজ ও সাকিবকে ভালোভাবে সামলানোর কথা জানিয়েছেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। এ দুই ক্রিকেটারের বিপক্ষে ভালো করতে না পারলে সিরিজে পিছিয়ে থাকবে বলে মনে করেন তিনি। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে খেলার সুবাদে সাকিব আল হাসান ও মোস্তাফিজুর রহমানকে খুব কাছ থেকে চেনেন অস্ট্রেলিয়ার হার্ডহিটার গ্লন ম্যাক্সওয়েল। বিপক্ষ দলে একাধিকবার বাংলাদেশের দুই তারকাকে পেয়েছিলেন ম্যাক্সওয়েল। এছাড়া আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও দুই-একবার ম্যাক্সওয়েলের বিপক্ষে খেলেছিলেন সাকিব ও মোস্তাফিজ। গতকাল বাংলাদেশ দল বিশ্রামে থাকলেও অস্ট্রেলিয়া দল সকাল ১০টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত অনুশীলন করেছে। অনুশীলনের ফাঁকে ম্যাক্সওয়েল দলের প্রতিনিধি হয়ে আসেন সংবাদ সম্মেলনে। সাকিব ও মোস্তাফিজকে নিয়ে ম্যাক্সওয়েল বলেন, ‘আমাদেরকে অবশ্যই ওদের বিপক্ষে ভালো খেলতে হবে। ওরা যেন টেস্ট সিরিজে প্রাধান্য বিস্তার করতে না পারে সেদিকে আমাদের নজর রাখতে হবে। আমাদের অবশ্যই শুরু থেকে ভালো খেলতে হবে।’  মোস্তাফিজকে নিয়ে ম্যাক্সওয়েল বলেছেন, ‘মোস্তাফিজুর নিঃসন্দেহে ব্যতিক্রমী বোলার। ওকে আমরা আইপিএলে খেলেছি। হয়ত ওর গতি কিছুটা কমেছে টেস্ট খেলার কারণে। তবুও ও দারুণ বোলার যে নিখুঁতভাবে বল সুইং করাতে সক্ষম। ও যেভাবে স্লোয়ার বলটি করে সেটা এক কথায় অবিশ্বাস্য। আমরা সচরাচর যে বাঁহাতি পেসারদের খেলি ও সেরকম নয়। রিস্ট বোলিংয়ের শেষ মুহূর্তে বল ফ্লিক করতে সক্ষম। ওটাই ওর বাম্পার স্লোয়ার বল। এ বলটি পিক করা বেশ কঠিন।’  বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিবকেও প্রশংসায় ভাসিয়েছেন ম্যাক্সওয়েল। তার ভাষ্য, ‘সাকিব দারুণ ক্রিকেটার। সে একজন জেনুইন অলরাউন্ডার।’  বাংলাদেশ সফরে আসার আগে ‘এ’  দলের হয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা যাওয়ার কথা ছিল গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের। কিন্তু সফর বাতিল হওয়ায় দক্ষিণ আফ্রিকায় খেলার সুযোগ হারান ম্যাক্সওয়েল। নির্বাচকরা তবুও তার উপর আস্থা রাখেন। সুযোগ করে দিয়েছেন বাংলাদেশ সফরে। বাংলাদেশ সফর ম্যাক্সওয়েলের জন্য আরও গুরুত্বের। এ সিরিজের উপর ম্যাক্সওয়েলের অ্যাশেজ খেলার ভাগ্য নির্ধারণ হবে। ভালো খেললে নবেম্বরের অ্যাশেজ সিরিজে জায়গা পাবেন। চলতি বছরের শুরুতে ভারতে দুটি টেস্ট খেলেছিলেন হার্ডহিটার এ ব্যাটসম্যান। সেঞ্চুরিসহ দুই টেস্টে রান করেছিলেন ১৫৯। দুই টেস্টে তার ব্যাটিং প্রশংসিত হয়েছিল। পরিস্থিতি বুঝে ডিফেন্সিভ এবং অ্যাটাকিং ব্যাটিং করেছিলেন ম্যাক্সওয়েল। বাংলাদেশ সফরেও একই ধরণে ব্যাটিং করার কথা জানিয়েছেন ডানহাতি মিডল অর্ডার এ ব্যাটসম্যান। ম্যাক্সওয়েল বলেন,‘আমি আমার ব্যাটিংয়ের ধরণ পাল্টাবো না। ভারতে যেভাবে আমি ব্যাটিং করেছিলাম ঠিক সেভাবেই এখানে ব্যাটিং করব। তাদের বিপক্ষে ভালো করার জন্য আমার যথেস্ট পরিকল্পনা রয়েছে। ডিফেন্সিভ থেকে সেখান থেকেই রান বের করার চেষ্টা করব। বড় সময় ধরে ব্যাটিং করার পরিকল্পনা রয়েছে যেন সেঞ্চুরি করা যায়।’  বাংলাদেশ সফরের যাত্রাটা সুখকর হয়নি ম্যাক্সওয়েলের। প্রথম দিনই অতিরিক্ত গরমে হিট স্ট্রোকে পড়েছিলেন। তবে এখন পুরোদমে অনুশীলন করছেন। মাঠে খানিকটা রানিং করে ইনডোরে ফিটনেস ট্রেনিংয়ে মনযোগী ম্যাক্সওয়েল। এছাড়া ব্যাটিং-বোলিং করছেন নিয়মিত। প্রথম টেস্ট ম্যাচকে সামনে রেখে শেষ প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন তিনি। এ অসি ক্রিকেটার বলেন, ‘শেষ কয়েকদিন ধরেই দারুণ প্রস্তুতি হচ্ছে। এখন শেষ মুহুর্তের প্রস্তুতি চলছে। আমার মনে হয় ছেলেরা সবাই সময়টাকে উপভোগ করছে।’  নিজের ব্যাটিং অনুশীলন নিয়ে ম্যাক্সওয়েল বলেন,‘বাংলাদেশের বোলাররা স্ট্যাম্পে আঘাত করতে পছন্দ করে। তারা উইকেট টু উইকেট বোলিং করে যেন রক্ষণাত্মক ব্যাটিংয়ে চাপ তৈরি হয়। আমি প্যাডের সামনে এসে ব্যাটিং করছি। আশা করছি এটা এখানে দারুণ কাজে দিবে।’  টেস্ট ক্রিকেটে অস্ট্রেলিয়া দলে জায়গা পেতে হলে আরও অনেক কষ্ট করতে হবে বলে মনে করছেন ম্যাক্সওয়েল। তার মতে,‘অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলে স্থায়ীভাবে জায়গা পাওয়া বেশ কঠিন। এখনও অনেক দূর বাকি। আমি জানি আমাকে ধারাবাহিকভাবে পারফর্ম করে যেতে হবে। প্রতিটি ম্যাচে আমাকে অবদান রাখতে হবে।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ