ঢাকা, শুক্রবার 25 August 2017, ১০ ভাদ্র ১৪২8, ০২ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

বন্যায় ভয়াবহ খাদ্যসঙ্কটে পড়তে পারে বাংলাদেশ -জাতিসংঘ

গতকাল বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে বন্যার্তদের সাহায্যার্থে বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে চেক গ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছবি : বাসস

 

সংগ্রাম ডেস্ক : বাংলাদেশে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ২ লাখেরও বেশি মানুষকে খাদ্য সহায়তা দেয়ার প্রক্রিয়া শুরু করার পরপরই জাতিসংঘ গত বুধবার বলেছে, অনেক কৃষিজমির ক্ষয়ক্ষতির কারণে দীর্ঘমেয়াদি খাদ্য সরবরাহে মারাত্মক বিঘœ ঘটার আশঙ্কা রয়েছে। আরটিএনএন

বাংলাদেশের দুর্যোগ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বুধবার বলেছেন, বন্যায় কমপক্ষে ১৩২ জন মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন কমপক্ষে ৭৫ লাখ মানুষ। এবারের বন্যায় বাংলাদেশের নিম্নাঞ্চলের এক-তৃতীয়াংশ তলিয়ে যায়। বিশ্বের অন্যতম ঘনবসতির এ দেশে এ অবস্থা রয়েছে গত দু’সপ্তাহ। 

জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির (ডব্লিউএফপি) বাংলাদেশ কান্ট্রি ডিরেক্টর ক্রিস্টা র‌্যাডার এক বিবৃতিতে বলেছেন, বন্যার ধকল কাটিয়ে ওঠা বহু মানুষ সব কিছু হারিয়েছেন। তারা বাড়িঘর, সহায় সম্পদ, ফসল সব হারিয়েছেন। এসব মানুষের এখনই খাদ্যের প্রয়োজন। দীর্ঘ মেয়াদে তাদের জন্য পূর্ণাঙ্গ খাদ্য নিরাপত্তা ভয়াবহ এক সঙ্কটের মুখে।

এবারের বন্যায় বাংলাদেশ, ভারত ও নেপালে কমপক্ষে ৮০০ মানুষ মারা গেছে। ১০ লাখেরও বেশি মানুষ গৃহহারা হয়েছে। ত্রাণকর্মীরা পূর্বাভাস দিচ্ছেন, আক্রান্ত এলাকাগুলোতে ভয়াবহ খাদ্য সঙ্কট ও পানিবাহিত রোগ দেখা দিতে পারে। এর ওপর রয়েছে অব্যাহত বৃষ্টি।

মৌসুমী বৃষ্টিপাতকে দক্ষিণ এশিয়ার কৃষকদের জীবনদায়ক হিসেবে দেখা হয়। জুলাই থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে প্রতি বছর এমন বৃষ্টিপাত হয়। এতে অনেক প্রাণহানী হয়। সম্পদের ক্ষতি হয়। কিন্তু অনেক বছরের মধ্যে এবারের বন্যা সবচেয়ে ভয়াবহ বলে দাবি করেছেন কর্মকর্তারা।

ডব্লিউএফপি বলেছে, বাংলাদেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের বহু পরিবার এখনো অস্থায়ী আশ্রয় কেন্দ্রে অবস্থান করছে। এখনো বাড়ি ফেরার মতো পরিস্থিতি তৈরি হয় নি। এসব মানুষ তীব্র খাদ্যাভাব ও দারিদ্র্যের মুখে পড়ার বড় ধরনের ঝুঁকিতে রয়েছে।

বাংলাদেশের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়েছে, কমপক্ষে ১০ হাজার হেক্টর (২৪ হাজার ৭১১ একর) জমির ফসল পানি ভাসিয়ে নিয়ে গেছে। নষ্ট হয়ে গেছে আরো ৬ লাখ হেক্টর (১৪ লাখ ৮২ হাজার ৬৩২ একর) জমির ফসল। খাদ্যসহ দরকারি জিনিসপত্র কিনতে তিন মাসের জন্য এক লাখ বয়স্ক, অচল মানুষ, পুরুষছাড়া পরিবারকে চার হাজার টাকা করে দিচ্ছে ডব্লিউএফপি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ