ঢাকা, শুক্রবার 25 August 2017, ১০ ভাদ্র ১৪২8, ০২ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

পবিত্র আশুরার দিনে দুর্গা বিসর্জন নিষেধ করলেন মমতা

সংগ্রাম ডেস্ক  : রাজ্যে কোনো ধর্মীয় হানাহানি চাননা ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। আর এজন্যই এবার মুসলিমদের পবিত্র আশুরার দিনে দুর্গা বিসর্জনের দিন তারিখ থাকলেও তা পিছিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

গত বুধবার দুর্গাপূজার আয়োজক কমিটিগুলোর সঙ্গে একটি আলোচনা সভা করেন মমতা। ওই সভায় উপস্থিত ছিলেন মুসলিম ধর্মীয় নেতা থেকে শুরু করে অন্যান্য ধর্মীয় প্রতিনিধিরা। সভাস্থলে মমতা বলেন, ‘দিন তারিখ অনুযায়ী, ৪ দিনের দুর্গাপূজা শেষে ৩০ সেপ্টেম্বর প্রতীমা বিসর্জনের জন্য নির্ধারিত। তবে, মহররমের জন্য নির্ধারিত দিনে তা হবেনা। ২ অক্টোবরই প্রতীমা বিসর্জণ দেওয়া হবে।’ আমাদের সময়কম

যুক্তি হিসেবে মমতা বলেন, ‘দুটি ধর্মীয় আচার একই দিনে হলে দুই ধর্মের অনুসারীদের মধ্যে সংঘর্ষের সূত্রপাত হতে পারে। কিছু সুযোগ সন্ধানী লোক এই সময়টিকে কাজে লাগাতে পারে।’

মমতার এমন আহানের পরই পশ্চিমবঙ্গের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনা সমালোচনা ঝড় উঠেছে। পশ্চিমবঙ্গের বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘রাজ্যে কি এখন তালেবানি শাসন শুরু হয়ে গেছে? স্কুলগুলোতে স্বরস্বতি পূজাও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।’

মমতা মুসলিম ঘেঁষা নীতি অবলম্বণ করছেন জানিয়ে কেউ কেউ বলছেন, পশ্চিমবঙ্গে এখন উন্দু-আরবি শব্দের প্রচলনও শুরু হয়ে গেছে। উদাহরণ হিসেবে- কলকাতায় এখন আব্বা, আম্মা, আসমানী শব্দগুলো প্রায়ই শোনা যাচ্ছে বলে মন্তব্য করেন অনেকে।

তবে, ধর্মীয় সংঘর্ষ এড়ানোর জন্য মমতার পদক্ষেপকে সুদূরপ্রসারী বলছেন অনেকে। মমতার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে মুসলিম সম্প্রদায়। এনডিটিভি

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ