ঢাকা, রোববার 27 August 2017, ১২ ভাদ্র ১৪২8, ০৪ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

যৌতুকের দাবিতে খুলনায় স্বামীর এসিডে ঝলসে গেছে এক গৃহবধূ

খুলনা অফিস : যৌতুকের দাবিতে স্বামীর ছোড়া এসিডে ঝলসে গেছে তানজিলা বেগম (৩২) নামের এক গৃহবধূ।  শুক্রবার সন্ধ্যায় নড়াইলের নড়াগাতি থানার মাওলী এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। এরপর রাতেই তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকে তার স্বামী পলাতক রয়েছে। আর গৃহবধূর শ্বশুর, শাশুড়ি ও ননদকে আটক করে পুলিশ থানায় নিয়ে গেছে।
এসিড সন্ত্রাসের শিকার দুই সন্তানের জননী তানজিলা বেগম ভাই আব্দুল হাই জানান, যৌতুকের দাবিতে তার বোনের ওপর প্রায় তার স্বামী মনিরুজ্জামান মনিরসহ শ্বশুর পক্ষের লোকজন নির্যাতন করতো। প্রথম দফায় নির্যাতনের পর তাদের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন তারা। তখন মনির ক্ষমা চাইলে মামলাটি প্রত্যাহার করে নেয়া হয়। এরপর মনির তার স্ত্রীকে বাড়িতে নিয়ে যায়।
কিছুদিন পর শ্বশুরবাড়ির লোকজন আবারও যৌতুকের দাবিতে তানজিলার ওপর নির্যাতন শুরু করে। এ কারণে সে বাবার বাড়ি মাউলীতে চলে যায়। এবং আবারও তার শ্বশুরবাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। সম্প্রতি মনিরসহ আসামীরা হাইকোর্ট থেকে জামিন নিয়ে এলাকায় ফিরে আসে। এরপরই শুক্রবার পরিকল্পিতভাবে তানজিলার উপর এসিড নিক্ষেপ করা হয় বলে পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ করেছে। তাদের দাবি দুর্বৃত্তরা মোটরসাইকেলযোগে এসে তানজিলার দিকে এসিড ছুঁড়ে মারে। এরপর তাকে শুক্রবার গভীর রাতে খুমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
নড়াগাতি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুবুর রহমান বলেন, ওই গৃহবধূর ওপর দাহ্য পদার্থ নিক্ষেপ করা হয়েছে। এ ঘটনার পর তার শ্বশুর আবুল কালাম, শাশুড়ি ও ননদকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানা হেফাজতে নেয়া হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ