ঢাকা, বুধবার 06 September 2017, ২২ ভাদ্র ১৪২8, ১৪ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

খুলনায় শত কোটি টাকার সীমানা পিলারসহ দুইজন গ্রেফতার

খুলনা : শত কোটি টাকা মূল্যের একটি কথিত সীমানা পিলারসহ একটি সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের সদস্য রেহেনা পারভীন (৩৮) ও মোঃ শফিকুল ইসলাম গাজী (৪ কে গ্রেফতার করা হয়েছে

খুলনা অফিস : খুলনায় একটি সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের সদস্য রেহেনা পারভীন (৩৮) ও মোঃ শফিকুল ইসলাম গাজী (৪৫) কে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ সময় তাদের কাছ থেকে শত কোটি টাকা মূল্যের একটি কথিত সীমানা পিলার উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বেলা পৌণে তিন টার দিকে পাইকগাছা উপজেলার দেবদুয়ার গ্রামে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ এ অভিযান চালায়। 

খুলনা জেলা পুলিশ সুপার নিজামুল হক মোল্যা জানান, মঙ্গলবার দুপুরে জেলা গোয়েন্দা শাখার ইনচার্জ সিকদার আককাছ আলী পিপিএম এর নেতৃত্বে একটি বিশেষ টিম পাইকগাছা থানাধীন দেবদুয়ার গ্রামে অভিযান চালায়। এ সময় উক্ত এলাকা থেকে দেবদুয়ার এলাকার বাসিন্দা মো. হাফিজুর রহমান গাজীর স্ত্রী রেহেনা পারভীন (৩৮) ও গোপালপুর গ্রামের মৃত বনিক গাজীর ছেলে মো. শফিকুল ইসলাম গাজী (৪৫) কে গ্রেফতার করে। এ সময় তাদের কাছ থেকে কথিত শত কোটি টাকা মূল্যমানের একটি সীমানা পিলার উদ্ধার করা হয়। 

তিনি আরো বলেন, গ্রেফতারকৃত রেহেনা পারভীন ও শফিকুল ইসলামসহ একটি সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্র দীর্ঘদিন যাবৎ নকল সীমানা পিলার প্রস্তুত করে শত কোটি টাকা মূল্যমান বলে প্রচার এবং প্রকৃত সীমানা পিলার বলে বিভিন্ন লোকদের কাছে প্রতারণা করে আসছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার ২টা ৪০ মিনিটে গ্রেফতারকৃত আসামীদের বসত বাড়ী ঘেরাও করলে প্রতারক চক্র দিকবিদিক হয়ে দৌড়ে পলানোর চেষ্টাকালে কথিত সীমানা পিলারসহ আসামীদেরকে গ্রেফতার করা হয়। এ ব্যাপারে পুলিশ পরিদর্শক এসএম আলমগীর কবির বাদি হয়ে পাইকগাছা থানার বিশেষ ক্ষমতা আইনের ২৫খ(২)/২৫ঘ ধারায় মামলা দায়ের করেছে। মামলা নং-০৬ তারিখ-০৫/০৯/২০১৭ খ্রিঃ।

অপরদিকে গত ২৮ আগস্ট রাতে রূপসা থানাধীন রূপসা বাসস্ট্যান্ড রাজ ফিস এর সামনে থেকে অপর প্রতারক চক্রের দলনেতা মো. মনিরুল ইসলাম শিকদার ওরফে মনির (৪৮) কে গ্রেফতার করা হয়েছে। সে নড়াইল জেলার নড়াগাতী থানার মূলখানা গ্রামের মো. রেজাউল শিকদারের ছেলে। বর্তমানে সে খুলনা মহানগরীর পূর্ব বানিয়া খামার ৯ম গলির বাসিন্দা। এ সময় তার কাছ থেকে একটি তামার তৈরি বোতল আকৃতি ধাতব পদার্থ (যাহা তিন ভাগে খোলা যায়, লম্বা-১৩ সে. মি., গায়ে ঊঅঝঞ ওঘউওঅ ঈঙগচঅঘণ-১৮১৮ লেখা বোতলের ভিতরে ইলেকট্রিক ডিভাইস সংযুক্ত, মাথার অংশ চাপ দিলে কম্পন বোতল আকৃতির কথিত ম্যাগনেট উদ্ধার করা হয়। যার মূল্য প্রায় ২০ কোটি টাকা বলে আসামী প্রচারণা চালায়। এ ঘটনায় জেলা ডিবি পুলিশের এসআই অর্জুন কুমার দাস বাদি হয়ে রূপসা থানায় মামলা দায়ের করেছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ