ঢাকা, বুধবার 06 September 2017, ২২ ভাদ্র ১৪২8, ১৪ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

সৈয়দপুরে দৃষ্টি প্রতিবন্ধি ঢোল বাজিয়ে গান গেয়ে সংসার চালায়

সৈয়দপুর (নীলফামারী) সংবাদদাতা : দৃষ্টি প্রতিবন্ধি যুবক শাহিনুর ইসলাম শাহিন। ঢোল বাজিয়ে গলায় গান তুলে মজমা জমান। মানুষজন তাঁর গান শুনে ও বাজনের তাল দেখে পয়সাকড়ি দেন। এভাবে তাঁর প্রতিদিন আয় হয় ২শ’ থেকে ৫শ” টাকার মতো। এই টাকা দিয়ে মা-বাবা নিয়ে তাঁর সংসার চলে।
নীলফামারীর সৈয়দপুর শহরের মাইক্রো বাসস্ট্যান্ডে কথা হয় শাহিনের সাথে। সে জানায়, রংপুরের পাগলাপীর এলাকার পীরের বাজার এলাকায় তাঁর বাড়ি। পরিবারে বাবা-মা ও একবোন রয়েছে। বোনের বিয়ে হয়েছে। বাবা আব্দুল কাইয়ুম অন্যের জমি বর্গা চাষ করেন। কিন্ত এবারের বন্যায় সব শেষ হয়ে গেছে।
ছোট্ট বেলা থেকেই শাহিনের গানের প্রতি ঝোঁক ছিল। সে জন্মগতভাবে চোখে আবছা আবছা দেখতে পায়। হাতে টাকা পয়সা না থাকায় ভালোভাবে চিকিৎসা করাতে পারেনি। সে ১০ম শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা করেছে পানবাজার উচ্চ বিদ্যালয়ে। এরপর জীবিকার সন্ধানে বেড়িয়ে পড়ে। রংপুর, দিনাজপুর, নীলফামারী, সৈয়দপুর, পার্বতীপুর, বদরগঞ্জ, খানসামা, চিরিবন্দর প্রভৃতি এলাকায় গান গেয়ে মজমা জমায়।
তাঁর সুরেলা কন্ঠের গান আর ঢোলের বাজন দেখার জন্য লোকজন জমায়েত হন। খুশি হয়ে টাকা-পয়সা দেন। এভাবে প্রতিদিন আয়-রোজগার করে তিন পরিবারের সংসার চালায় সে। নিজের জায়গা-জমি বলতে মাত্র ৭ শতক জমিতে ভিটে রয়েছে। প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে যেদিন  শাহিন বাইরে যেতে পারেনা, সেদিন পরিবারটাকে উপোষ থাকতে হয়। আগে খালি কলস, গামলাকে ঢোল বানিয়ে বাজাতেন। কিন্ত অতিকষ্টে এই ঢোল কিনেছেন শাহিন।
শাহিন ঢোল বাজিয়ে গান করে মজমা জমান। আর সেখান থেকে উপার্জিত অর্থে কষ্টে চালান শাহিন। তিনি বলেন, কষ্ট করে খাই, কারো কাছে হাত পাতি না, ভিক্ষাও করিনা। আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ