ঢাকা, বৃহস্পতিবার 07 September 2017, ২৩ ভাদ্র ১৪২8, ১৫ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

তালায় ঘোষনগর গ্রামে পানের বরজ তছনছ করে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা

তালা (সাতক্ষীরা) সংবাদদাতা : হারি করে জমি নিয়ে বরজ করছিলাম। এজন্য এনজিও লোন আর ধার-দিনা করে এ বরজ করেছিলাম।
তাদের দিনা শোধ করতে পারেনি। এরমধ্যে শত্রুতার বলি হয়েছে পানের বরজ। ১০ মিনিটেই ভেঙ্গে তছনছ করে দিয়েছে ভূক্তভোগীরা। এ ভাবেই কথা গুলো বলছিলেন সাতক্ষীরার তালা উপজেলার ঘোষনগর গ্রামের রবিন হরি ভোলা।
তিনি আক্ষেপ করে বলেন,‘দেনা শোধ করতে পারেনি। মানুষ টাকা নিতে বাড়ি আসছে। ওই পানের বরজ চাষ করে চলতো তার সংসার। এখন আমি দিশেহারা।' বুবধার বিকালে সাতক্ষীরার তালা উপজেলার ঘোষনগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
তালা উপজেলার ঘোষনগর গ্রামের রবিন হরি ভোলা জানান, তিনি প্রায় ত্রিশ বছর ধরে ঘোষনগর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা অমল কান্তি ঘোষ’র ১৯শতক জমি হারি নিয়ে পানের চাষ করে আসছে।
ঐ জমিটি নিয়ে অমল ঘোষ’র ভাই দুলাল ঘোষ’র সাথে তাদের দীর্ঘদিন বিরোধ চলছে। ওই জের ধরে ঘটনার দিন বিকালে দুলাল কান্তি ঘোষের কন্যা স্বামী পরিত্যক্তা মঞ্জুশ্রী ঘোষ মিত্রসহ সংঘবদ্ধ দল দেশিয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ইজারাকৃত পানের বরজটি তছনছ করে দিয়েছে। এতে অসহায় কৃষক’র প্রায় ছয় লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। এতে ঐ কৃষক পরিবার পরিজন নিয়ে অসহায়ত্বের মধ্যে দিনাতিপাত করছে।
এরপূর্বে ঐ জমি নিয়ে বিরোধ হলে রবিন হরি ভোলা চলতি বছরের  ৫ মে তালা থানায় একটি সাধারণ ডাইরি করেন। যার নং ১৭৭ । পরবর্তীতে তালা থানা পুলিশ সালিশী বৈঠকে সিদ্ধান্ত মতে রবিন হরি ভোলাকে পানের বরজ চাষ করার সিদ্ধান্ত দেয়। সেই মতে সে পানের বরজ চাষ করে আসছে। এ সালিশ অমান্য করে মঞ্জুশ্রী ঘোষ মিত্র ঐ জমি থেকে  ১৪ আগষ্ট তারিখে প্রায় এক লক্ষাধিক টাকার ফসল চুরি করে নেয়। তা লোকমুখে জানাজানি হলে আকস্মিক ভাবে বুধবার বিকাল ৩টার সময় সংঘবদ্ধ দুর্বৃত্তদের সাথে নিয়ে প্রকাশ্যে  পানের বরজ তছনছ করে দেয়। স্থানীয় মেম্বর প্রকাশ দালাল বলেন, ওই মহিলা আসলেই বেপরোয়া, সে কাউকেই ভয় পায় না। এব্যাপারে অসহায় কৃষক প্রশাসনের কাছে সহযোগিতা কামনা করেছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ