ঢাকা, বৃহস্পতিবার 07 September 2017, ২৩ ভাদ্র ১৪২8, ১৫ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মিয়ানমারের ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রদূতকে আবারও তলব

স্টাফ রিপোর্টার : মিয়ানমারের ভারপ্রাপ্ত রাষ্টদূত অং মিন্টকে আবারও তলব করেছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।
গতকাল বুধবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অনুবিভাগের মহাপরিচালক মঞ্জুরুল করীম তাকে তলব করেন এবং বাংলাদেশে অপ্রত্যাশিতভাবে অত্যধিক রোহিঙ্গা প্রবেশ করার ঘটনায় আবারও প্রতিবাদ জানান।
এ বিষয়ে তাকে একটি অনানুষ্ঠানিক পত্র হস্তান্তর করা হয়। ওই পত্রে রোহিঙ্গাদের সুরক্ষা এবং অব্যাহত নিপীড়নের মুখে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের দ্রুত ফেরত নেয়ার দাবি জানানো হয়েছে বলে মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিবৃতিতে বলা হয়েছে।
এতে বলা হয়, রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে বাড়তে থাকা সহিংসতার মধ্যে তাদের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান পরিচালনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ। অভিযানে ‘অযৌক্তিক ও অপ্রয়োজনীয়’ বলপ্রয়োগ করায় ব্যাপক হারে বেসামরিক হতাহতের ঘটনা ঘটছে।
ভীত-সন্ত্রস্ত রোহিঙ্গারা নজিরবিহীন সংখ্যায় বাংলাদেশ সীমান্তে ঢুকে পড়ছে বলে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলা হয়, বাংলাদেশ এই সহিংসতার শিকার হতে পারে না (বাংলাদেশ শুড নট বি দ্য ভিকটিম)।
রাখাইনে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সহিংসতা বন্ধ করে তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে অবিলম্বে পদক্ষেপ নেয়ার দাবিও জানিয়েছে বাংলাদেশ। ওই রাজ্যে পরিস্থিতি সরেজমিনে দেখতে জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থাসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মানবিক সহায়তা সংস্থার অবাধ প্রবেশাধিকারও চাওয়া হয়েছে। নিপীড়নের মুখে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের অবিলম্বে ফেরত নেয়ারও দাবি জানানো হয়েছে।
উল্লেখ্য, দুই সপ্তাহের মধ্যে এ নিয়ে তিনবার মিয়ানমারের ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রদূতকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ডেকে পাঠানো হলো। এর মধ্যে দ্বিতীয় দফায় তাকে ডেকে বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তে জঙ্গি প্রতিরোধে যৌথ টহলের প্রস্তাব দেওয়া হলেও প্রথম ও তৃতীয় দফায় অব্যাহতহারে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ ঘটার প্রতিবাদ জানায় বাংলাদেশ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ