ঢাকা, বৃহস্পতিবার 07 September 2017, ২৩ ভাদ্র ১৪২8, ১৫ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

আ’লীগ আবারো একতরফা নির্বাচনের পাঁয়তারা করছে

স্টাফ রিপোর্টার : ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ আবারো একতরফা নির্বাচনের পাঁয়তারা করছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ আজকে তাদের জবর-দখল করা শাসন বন্দুক-পিস্তল দেখিয়ে ভিন্নমতকে স্তব্ধ করে দিতে চায়, বিরোধী দলকে তারা স্তব্ধ করে দিতে চায়। তারা আবারো একটা একতরফা নির্বাচনের পাঁয়তারা করছে। তারা ভাবছে যে, ২০১৪ এর ৫ জানুয়ারির মতো আরেকটা নির্বাচন করবে, আবার ক্ষমতায় আসবে। আমরা স্পষ্ট করে বলতে চাই, এদেশের মানুষ ২০১৪ এর ৫ জানুয়ারি মতো একতরফা নির্বাচন হতে দেবে না এবং সেই নির্বাচন এদেশের মানুষ মেনে নেবে না। এসময় মিয়ানমারের রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে বর্তমান সরকার উদ্যোগ নিতে ব্যর্থ হয়েছে দাবি করে অবিলম্বে বিষয়টি জাতিসংঘে তোলার দাবি জানান তিনি। গতকাল বুধবার বিকেলে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। জাতীয় প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে মহানগর উত্তর বিএনপির উদ্যোগে দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ১০তম কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে এই আলোচনা সভা হয়। ২০০৭ সালের ৩ সেপ্টেম্বর উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে যাওয়ার আবেদনে উচ্চ আদালত তারেক রহমানকে জামিন দেয়।

মহানগর উত্তর বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি মুন্সি বজলুল বাসিত আনজু‘র সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আহসানউল্লাহ হাসানের পরিচালনায় আলোচনা সভায় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরফত আলী সপু, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, ওলামা দলের সভাপতি হাফেজ আবদুল মালেক, মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, মহানগর উত্তরের সহ-সভাপতি আব্দুল আলী নকি, যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান আনোয়ার প্রমূখ বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে ইতালীয় নাগরিক তাভেল্লা সিজার হত্যা মামলার আসামী মালয়েশিয়ায় অবস্থান নেয়া মহানগর উত্তরের সভাপতি এম এ কাইয়ুম মোবাইল ফোনের মাধ্যমে নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন।

রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে সরকার ব্যর্থ উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, আজকে রোহিঙ্গা সমস্যায় ছুটে আসছে ইন্দোনেশিয়া থেকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী, ছুটে আসছে তুরস্কে থেকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী, ইউনাটেড নেশনস বানী দিয়েছে অবিলম্বে এটা বন্ধ করুন। আমাদের সরকারের এখন পর্যন্ত কোনো দূত কোথাও যায়নি, আমাদের সরকার এখন পর্যন্ত জাতিসংঘে প্রসঙ্গটি উপস্থাপন করেনি। তিনি বলেন, আমরা আজকে এই সভা থেকে জোর দাবি জানাচ্ছি যে, অবিলম্বে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানের জন্য জাতিসংঘে তোলা হোক, এটা সমাধান করবার ব্যবস্থা করা হোক।

সরকারের ব্যর্থতার সমালোচনা করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আজকে যখন মিয়ানমার থেকে লক্ষ লক্ষ রোহিঙ্গা মুসলমান-হিন্দুকে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী গুলী করে গণহত্যা চালিয়ে বিতাড়িত করছে, তারা যখন আমাদের এখানে আশ্রয় প্রার্থনা করছে, তখন এই সরকার তাদেরকে আশ্রয় দিতে ব্যর্থ হয়েছে। এই সরকার ব্যর্থ হয়েছে কুটনৈতিক প্রচেষ্টা চালিয়ে মিয়ানমারকে বাধ্য করতে যে, রোহিঙ্গদেরকে দেশে ফিরিয়ে সন্মানের জীবনযাপন করতে দিতে হবে, তাদেরকে জীবনের অধিকার দিতে হবে- এই সরকার এই কাজগুলো করেনি। হিন্দু না মুসলমান তারা আমরা জানি না, আমরা তা বলতে চাই না। কা-ারি ডুবিছে মানুষ মোর, মানুষ মারা যাচ্ছে, মানুষ মরছে তাকে রক্ষা করতে হবে। সেইদিকে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে।

সরকার আবারো একতরফা নির্বাচনের পাঁয়তারা করছে বলে অভিযোগ করেছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ আজকে তাদের জবর-দখল করা শাসন বন্দুক-পিস্তল দেখিয়ে ভিন্নমতকে স্তব্ধ করে দিতে চায়, বিরোধী দলকে তারা স্তব্ধ করে দিতে চায়। তারা আবারো একটা একতরফা নির্বাচনের পাঁয়তারা করছে। তারা ভাবছে যে, ২০১৪ এর ৫ জানুয়ারির মতো আরেকটা নির্বাচন করবে, আবার ক্ষমতায় আসবে। আমরা স্পষ্ট করে বলতে চাই, এদেশের মানুষ ২০১৪ এর ৫ জানুয়ারি মতো একতরফা নির্বাচন হতে দেবে না এবং সেই নির্বাচন এদেশের মানুষ মেনে নেবে না। একাদশ নির্বাচন ‘অবশ্যই নির্দলীয় নিরপেক্ষ সহায়ক সরকার’ এর অধীনে এবং ‘একটি নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের পরিচালনায়’ হতে হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

গত কয়েক সাপ্তাহে ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শরিক কল্যাণ পার্টির মহাসচিব এম এম আমিনুর রহমানসহ দুই ব্যবসায়ী গুম হওয়ার ঘটনা তুলে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, এই সরকারের জনগনের কাছে কোনো জবাবদিহিতা নাই, কাউকে মেরে ফেললেও কোনো জবাবদিহিতা করতে হয় না, কাউকে খুন করলেও জবাবদিহি করতে হয় না, কাউকে গুম করলেও জবাবদিহি করতে হয় না। আর এখন তো আবার নতুন করে আপনার ইয়ে জঙ্গিদমন অভিযানে চলছে, সেই জঙ্গিদমন অভিযানে বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পাঁচ বছরের বাচ্চা, ৬ মাসের বাচ্চা, ১৬ মাসের বাচ্চা পর্যন্ত কেউ রেহাই পাচ্ছে না। এই একটা অবস্থা।

এই অবস্থা থেকে উত্তরণে দলের নেতা-কর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, এই সরকার যতদিন ক্ষমতায় থাকবে ততই বাংলাদেশ ক্ষতিগ্রস্থ হবে, ততই বাংলাদেশ আরো নিচের দিকে যাবে, ততই বাংলাদেশের মানুষের নিরাপত্তা থাকবে না। তাই আমরা মহানগরের নেতৃবৃন্দে কাছে অনুরোধ থাকবে- আপনারা মহানগরের প্রতিটি অঞ্চলকে, প্রতিটি পাড়া-মহল্লাকে একটি দুর্গে পরিণত করুন। বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদ নয় শুধু, গণতন্ত্রের পক্ষে যেন একটা শক্তি হয়ে দাঁড়াতে পারে, দুর্গ হতে পারে, সেইভাবে তুলে ধরুন, আমরা সফল হতে পারবো।

নিন্দা ও প্রতিবাদ: গত ৪ সেপ্টেম্বর শেরপুর জেলাধীন সদর উপজেলা বিএনপি কর্তৃক আয়োজিত বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান-এর কারামুক্তি দিবসের আলোচনা সভায় আওয়ামী সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের হামলা এবং পরবর্তীতে শাসক গোষ্ঠির ষড়যন্ত্রম–লক মিথ্যা মামলা দায়েরের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। 

গতকাল এক বিবৃতিতে বিএনপি মহাসচিব বলেন, বর্তমান শাসকগোষ্ঠী মানুষের বাক-ব্যক্তি স্বাধীনতা ও গণতান্ত্রিক রীতি-নীতিকে হরণ করে দেশের বৃহত্তম ও জনপ্রিয় রাজনৈতিক দল বিএনপিসহ অন্যান্য বিরোধী দলগুলোকে নিশ্চিহ্ন করতে প্রায় প্রতিদিনই নেতাকর্মীদেরকে গ্রেফতার এবং তাদের নামে নতুন নতুন কাল্পনিক ও উদ্ভট মামলা দায়েরের মাধ্যমে নাজেহাল করছে। জনবিচ্ছিন্ন সরকার কর্তৃক এধরণের হীন অপকর্মের উদ্দেশ্যই হচ্ছে রাষ্ট্রক্ষমতা হাতছাড়া না করা। সরকার রাজনৈতিক প্রতি'িহংসার বশঃবর্তী হয়েই জাতীয় সংসদের হুইপ আতিকুর রহমান আতিকের নির্দেশে শেরপুর জেলাধীন সদর উপজেলা কর্তৃক আয়োজিত বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান-এর কারামুক্তি দিবসের আলোচনা সভায় পুলিশ ও আওয়ামী সশস্ত্র ক্যাডাররা হামলা চালিয়ে অনুষ্ঠানে ভাঙচুর করে এবং অসংখ্য নেতাকর্মীকে আহত করে।  পরবর্তীতে ৫ সেপ্টেম্বর বিএনপির সাধারণ স¤পাদক হযরত আলীসহ ২৯ জনকে আসামী করে মিথ্যা ও বানোয়াট মামলা দায়ের করে।  এধরণে ন্যাক্কারজনক ঘটনা সরকারের ধারাবাহিক সন্ত্রাসী কর্মকান্ডেরই অংশ। আমি এই ধরণের কাপুরুষোচিত হামলা চালিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের আহত করা ও বানোয়াট মামলা দায়েরের ঘটনার তীব্র নিন্দা, প্রতিবাদ ও ধিক্কার জানাই এবং বিএনপি আলোচনা সভায় হামলার ঘটনায় দোষীদের গ্রেফতার  করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবি করছি। এছাড়া শেরপুর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হযরত আলীসহ ২৯ জন নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মিথ্যা ও বানোয়াট মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহার করার জোর দাবি জানাচ্ছি এবং আওয়ামী সন্ত্রাসীদের পৈশাচিক হামলায় আহত নেতা-কর্মীদের আশু সুস্থতা কামনা করছি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ