ঢাকা, বৃহস্পতিবার 07 September 2017, ২৩ ভাদ্র ১৪২8, ১৫ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

জঙ্গি-সন্ত্রাস বলে মুসলমানদের টার্গেট করা হচ্ছে

জঙ্গি-সন্ত্রাস বলে মুসলমানদের টার্গেট করা হচ্ছে দাবি করে জাগপার সভাপতি অধ্যাপিকা রেহানা প্রধান বলেন, রোহিঙ্গাদের রক্তপাত ও নির্মূল করার ষড়যন্ত্র এখনই রুখতে হবে। অন্যথায় মুসলিম গণহত্যার দায় প্রতিবেশী দেশগুলো এড়াতে পারে না। তিনি বলেন, মুসলমানরা জানতে চায় দাড়ি, টুপি ও মুসলিম হওয়াই কি রোহিঙ্গাদের অপরাধ? অবিলম্বে মুসলিম গণহত্যা বন্ধ করুন। আরাকান ও নাফ নদী এখন রোহিঙ্গাদের রক্তে লাল। ইনশাআল্লাহ মায়ানমারে ইসলাম ও মুসলমানদের বিজয় সুনিশ্চিত। তিনি সুচি সরকারকে অবিলম্বে গণহত্যা বন্ধ করে রোহিঙ্গাদের ফেরত নেবার দাবি জানান।
তিনি শেখ হাসিনার সরকারের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, জাতিকে হাইকোর্ট দেখাবার চেষ্টা করবেন না। তত্ত্বাবধায়ক বা সহায়ক বুঝি না। বুঝি জালিমশাহীর অধীনে নির্বাচন হতে দেওয়া হবে না। তিনি যুব জাগপাসহ যুব সমাজকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্দোলনের প্রস্তুতি নেওয়ার আহ্বান জানান।
গতকাল বুধবার যুব জাগপার ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আসাদ গেট দলীয় কার্যালয়ে ‘যুব সমাজ ঐক্য গড়ো, দুঃশাসন রুখে দাঁড়াও’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এদিকে সকাল ৭টায় দলীয় কার্যালয়ে যুব জাগপার পতাকা উত্তোলন ও সকাল ১১টায় জাগপার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও যুব জাগপার সাংগঠনিক নেতা মরহুম শফিউল আলম প্রধানের সমাধিতে যুব জাগপার নেতৃবৃন্দ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।
জাগপার যুব বিষয়ক সম্পাদক বেলায়েত হোসেন মোড়লের সভাপতিত্বে ও নগর যুব জাগপার সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বাবলুর পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন জাগপার সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা খন্দকার লুৎফর রহমান, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মো. শাহাদাত হোসেন, যুব জাগপার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম জুয়েল, যুবনেতা ইসহাক মীর, মো. মিলন, আনোয়ার হোসেন, শেখ বুদ্ধ, মো. সাবু, মো. মান্নান, হীরা প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ