ঢাকা, বৃহস্পতিবার 07 September 2017, ২৩ ভাদ্র ১৪২8, ১৫ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

সালমান শাহর মৃত্যুবার্ষিকীতে ফুলেল শ্রদ্ধা  আলোচনা ও দোয়া পরিবার-শিল্পী সমিতির 

স্টাফ রিপোর্টার : মৃত্যুবার্ষিকীতে ঢালিউডের ক্ষণজন্মা চিত্রনায়ক সালমান শাহকে ফুলেল শ্রদ্ধা, আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠানের মাধ্যমে স্মরণ করেছেন শিল্পীর পরিবার, চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি ও তার ভক্তরা। গতকাল বুধবার রাজধানী ঢাকা ছাড়াও সিলেটসহ বিভিন্ন স্থানে সালমান শাহ ভক্তরা তার স্মরণে উৎসব করেছে বলে জানা গেছে। অন্যদিকে সিলেটে সালমান শাহ ভক্ত ঐক্যজোটের ব্যানারে তার কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর পাশাপাশি বিক্ষোভ মিছিল করেছে। 

বাদ আসর এফডিসির শিল্পী সমিতিতে সাড়া জাগানো নায়ক সালমান শাহর স্মরণে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে সালমান শাহর ২১তম মৃতুবার্ষিকীতে তার রুহের মাগফিরাত কামনা করা হয়। তার কর্মময় জীবন নিয়ে আলোচনাও করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন শিল্পী সমিতির সহ-সভাপতি চিত্রনায়ক রিয়াজ, সাধারণ সম্পাদক ও চিত্রনায়ক জায়েদ খান, অভিনেতা শান আরাফসহ চলচ্চিত্রের ১৮টি সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত চলচ্চিত্র পরিবারের অনেক সদস্য। 

প্রকৃত নাম শাহরিয়ার চৌধুরী ইমন হলেও চলচ্চিত্র অঙ্গনে সালমান শাহ হিসেবেই পরিচিত এই নায়ক ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর রহস্যজনকভাবে মারা যান। একুশ বছর পেরিয়ে গেলেও সালমান শাহ খুন নাকি আত্মহত্যা এ প্রশ্নে কেবল দ্বিধাই বেড়েছে এতদিনে। তবে পৃথিবীর ওপারে চলে যাওয়া স্বপ্নের নায়ক সালমান শাহকে ভালোবাসতে, শ্রদ্ধাঞ্জলি দিতে কোনো দ্বিধা নেই চলচ্চিত্রপ্রেমীদের। 

এদিন বিকেলে সিলেট কোর্ট পয়েন্টে সালমান শাহ ভক্ত ঐক্যজোটের প্রধান উপদেষ্টা ও সালমান শাহর মা নীলা চৌধুরীর নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশ করা হয়। সেখানে নীলা চৌধুরী বলেন, সালমান শাহ আত্মহত্যা করেনি। তাকে অপরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। হত্যাকান্ডের কথা রুবিসহ দুজন আসামি স্বীকারও করেছে। তারপরও খুনিদের গ্রেফতার করা হচ্ছে না। শুধু সামিরা আর তার বাবা বলছে সালমান শাহ আত্মহত্যা করেছে। এ দু’জন ছাড়া আর কেউ একথা বলেনি। কারণ তারা এই হত্যাকান্ডের সাথে সরাসরি জড়িত।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, কারা কারা সালমান শাহকে হত্যা করেছে কেন হত্যা করেছে তার সবকিছুই জানতো রুবির ভাই রুমি। যার কারণে তাকেও গুম করা হয়েছে।

এর আগে নীলা চৌধুরীর নেতৃত্বে সালমান শাহ ভক্ত ঐক্যজোট নেতৃবৃন্দ হযরত শাহজালাল (রহ.) মাযার সংলগ্ন সালমান শাহর কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। এরপর সেখানে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। 

গুণী পরিচালক সোহানুর রহমান সোহানের হাত ধরে ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে ১৯৯২ সালে চলচ্চিত্র জগতে পদার্পণ সালমান শাহর। প্রথম ছবিতেই জনপ্রিয়তা অর্জন করতে সক্ষম হন। তারপর আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে নব্বই দশকের অন্যতম শ্রেষ্ঠ ও সুদর্শন নায়ক ছিলেন তিনি। মাত্র চার বছরের চলচ্চিত্র জীবনে ছুঁয়ে গেছেন জনপ্রিয়তার সবটুকু আকাশ। তিনি ২৭টি সিনেমা ছাড়াও বেশ কয়েকটি নাটক ও বিজ্ঞাপন চিত্রে অভিনয় করেন।

১৯৭১ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর জন্ম নেয়া সালমান শাহর মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে দেশের বিভিন্ন জেলায়ও নায়কের খুনীদের বিচার দাবি করে  বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশসহ নানা কর্মসূচি পালন করেছে। সারাদেশে এই ডাক দেন সালমান শাহ ভক্ত ঐক্যজোটের প্রধান উপদেষ্টা সালমান শাহ্র মা নীলা চৌধুরী। তাদের দাবি, এই চিত্রনায়ককে হত্যা করা হয়েছে। এই মৃত্যুর প্রকৃত রহস্য উদ্ঘাটন ও দোষীদের শাস্তির দাবিতে রাজপথে নামেন তারা।

এছাড়া এদিন সকালে ময়মনসিংহের চরপাড়া মোড় সিএনজি স্ট্যান্ডে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন ভক্তরা। এ সময় ভক্তরা বুকে কালো ব্যাচ ধারন করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ