ঢাকা, শুক্রবার 08 September 2017, ২৪ ভাদ্র ১৪২8, ১৬ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

পথে পথে ভোগান্তি এ রুটে চলাচলকারী যাত্রীদের

এম.তরিকুল ইসলাম লৌহজং (মুন্সীগঞ্জ) থেকে : আপনজনদের সাথে পবিত্র ঈদুল আযহার ছুটি কাটিয়ে কর্মস্থলে ও ঢাকায় ফিরতে শুরু করেছে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের যাত্রীরা । দক্ষিণ অঞ্চলের প্রায় ২১ জেলার মানুষ যাতায়াতের সুবিধার্থে তারা শিমুলিয়া-কাঠালবাড়ী নৌ-রুটটি ব্যবহার করে থাকে আর এদেরকে জিম্মি করে এক শ্রেণির অসাধু লঞ্চ মালিক,সি-বোট মালিক ও বাস মালিকরা অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছে বলে অভিযোগ করলেন একাধিক যাত্রী । এ দিকে নাব্যতা সংকটের কারণে এ নৌ-রুটেচলাচল কারী ১৯ টি ফেরীর মধ্যে ১৩ টি ফেরী বন্ধ রয়েছে। সচল রয়েছে মাত্র ৬ টি মিডিয়াম ও ছোট ফেরী । এ গুলো হল কেতকী,কিশোরী,কাকলী,করবী,কুমিল্লা ও ঢাকা । এ ব্যাপারে বি.আই.ডব্লিউ.টিসির শিমুলিয়া ঘাটের সহ:ম্যানেজার আব্দুল আলিম জানান নাব্যতা সংকটের কারণে এ রুটে ফেরী চলাচলে মারাত্মক ভাবে বিগ্ন সৃষ্টি হয় । যার ফলে আমরা মাইকিং করে পরিবহন ও আনান্য যানবাহনকে পাটুরিয়া-দৌলদতিয়া নৌ-রুট ব্যবহার করতে বলেছি । শিমুলিয়াতে যানবাহনের চাপ কম থাকলেও কাঠালবাড়ী ঘাটে যাত্রী ও যানবাহনের চাপ রয়েছে। তাই আমরা অনেক কষ্ট করে মিডিয়াম ও ছোট ফেরীগুলো চালু রেখেছি । ফেরীগুলো ঘাটে ভেরার সাথে সাথেই মটরসাইকেল ও যাএীদের চাপে ফেরী লোড হয়ে যায় । সরেজমিনে শিমুলিয়া ঘাটে কথা হয় সি-বোটে পার হয়ে আসা যাত্রী মো.শাওলিন সাগরের সাথে তিনি এ প্রতিবেদককে অতান্ত ক্ষোভের সাথে বলেন লিখে আর কি করবেন, ভাড়াতো কমেনা প্রশাষণের সামনেইতো তারা এ কাজ করেন, ফেরীতে দেখলাম ২৫ টাকার ভাড়া ৩০ টাকা ও সি-বোটে ১২০ টাকার স্থলে নিয়েছে ২০০ টাকা এখন ঢাকা যেতে বাসে ৭০ টাকার ভাড়া পরিবর্তে ১০র্০ করে আদায় করছে কোনকোন বাসে ১৫০ টাকা করে যাত্রী নিতে দেখেছি।আনেকক্ষণ ধরে ১০০ টাকা দিয়ে ইলিশ পরিবহনের টিকেট কিনে লাইনে দাড়িয়ে আছি। এ সময়ে বাস টার্মিনালে দেখা যায় যাত্রীদের লাইন । আর এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ঘাটের এক শ্রেণির বাস মালিকরা আতিরিক্ত ভাড়া  আদায়ের প্রতিযোগিতায় নেমেছে । ফলে যাত্রীদের বেরেছে দুর্ভোগ । অপর দিকে ফেরী ঘাটের ইজারাদারের লোকজন যাত্রীদের নিকট থেকে হাতিয়ে নেয় অতিরিক্ত টাকা ।এ ব্যাপারে একাধিকবার পত্রপত্রিকায় লেখা লেখি হলেও কোন কাজে আসেনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ