ঢাকা, রোববার 10 September 2017, ২৬ ভাদ্র ১৪২8, ১৮ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

রোহিঙ্গা নির্যাতন বন্ধে  ইসরাইলের অর্থডক্স রাব্বিদের  যুক্তরাষ্ট্রকে ‘এ্যাকশন’  নেয়ার আহ্বান

 

৯ সেপ্টেম্বর, হারেৎজ : ইসরায়েলের অর্থডক্স রাব্বিরা যুক্তরাষ্ট্র সরকারের কাছে লেখা এক চিঠিতে মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলমানদের সহায়তায় সুচি সরকারের ওপর কূটনৈতিক চাপ প্রয়োগের আহবান জানিয়েছেন। ওই চিঠিটিতে অর্থডক্স রাব্বিরা বলেছেন, ‘আমাদের ইহুদি ঐতিহ্য এই শিক্ষাই দেয় যে, তাদের পাশে দাঁড়াতে যারা বিপদাপন্ন। তারা অবিলম্বে সহিংসতা বন্ধ ও রোহিঙ্গাদের রক্ষা করার জন্যে যুক্তরাষ্ট্রকে এগিয়ে আসার আহবান জানান। যুক্তরাষ্ট্রের কাছে দেওয়া ওই চিঠিতে স্বাক্ষর করেন ২৬ জন রাব্বি। এই ২৬ জন রাব্বির সকলেই প্রগ্রেসিভ অর্থডক্স রাব্বিনিকাল গ্রুপ তোরা চায়িমের সদস্য। যুক্তরাষ্ট্র সরকারকে আহবান জানিয়ে রাব্বিরা বলেন, রোহিঙ্গা মুসলমানদের যে নির্যাতন ও নিগৃহীত করা হচ্ছে তা বন্ধের জন্যে মিয়ানমার সরকারকে যুক্তরাষ্ট্র সরকারকে কূটনৈতিক চাপ প্রয়োগ করতে হবে। গত বৃহস্পতিবার অর্থডক্স রাব্বিরা ওই চিঠিটি যুক্তরাষ্ট্র সরকারকে দেন।

চিঠিতে রাব্বিরা আরো বলেন, আমরা জানি মিয়ানমারে কি হচ্ছে, এর আগেও মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর নির্যাতন হয়েছে। এবং এখন রোহিঙ্গারা যখন নির্যাতিতা হচ্ছে, তাতে বিশ্ব নিশ্চুপ রয়েছে। আমাদের নিজস্ব ইতিহাস এই শিক্ষা দেয় যখন বিশ্বে কোনো জনগোষ্ঠীর ওপর নিপীড়র শুরু হয় তাদের পাশে দাঁড়াতে। এলি উইজেল আমাদের শিক্ষা দিয়েছেন, মৌনতা সবসময় অত্যাচারীকে সহায়তা করে, কখনই নিপীড়িতকে নয়। যুক্তরাষ্ট্রের কাছে দেওয়া এই চিঠিতে স্বাক্ষর করেন, ইয়েশিভাত চোভেভেই তোরা রাব্বিনিকাল স্কুলের প্রেসিডেন্ট রাব্বি আশহার লোপাটিন, রাব্বি মার্ক এ্যাঞ্জেলম নাথান লোপেস কান্দোজো, শিউলি ইয়াংক্লোৎস প্রমুখ। হারতেজের প্রতিবেদনে বলা হয়, গত দুই সপ্তাহে মিয়ানমার থেকে ২ লাখ ৭০ হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচআর বলছে, রোহিঙ্গাদের ভিড়ে ২টি ক্যাম্পে তিলধারণের ঠাঁই নেই। রোহিঙ্গা শরণার্থীরা বলছে, মিয়ানমার সেনাবাহিনী তাদের ওপর জাতিগত নিধন চালাচ্ছে। মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব বাতিল করেছে এবং কয়েক দশক ধরে সেনা নির্যাতন চালিয়ে আসছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ