ঢাকা, রোববার 10 September 2017, ২৬ ভাদ্র ১৪২8, ১৮ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

রোহিঙ্গাদের ওপর হত্যা-নির্যাতনের চিত্র সভ্য দুনিয়ায় কল্পনাও করা যায় না -এরশাদ

 

স্টাফ রিপোর্টার : জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, মিয়ানমার সরকার তাদের সেনাবাহিনীকে দিয়ে রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর যে ধরনের অত্যাচার-নির্যাতন চালাচ্ছেÑ তা আদিম বর্বরতাকেও হার মানিয়েছে। কোনো দেশের সরকার তার নাগরিকদের ওপর এমনভাবে হত্যা-নির্যাতন, নারী ধর্ষণ, শিশু হত্যা, নারী হত্যা করতে পারে কিংবা তাদের বাড়িঘর পুড়িয়ে দিতে পারে, তা সভ্য দুনিয়ায় কল্পনাও করা যায় না। 

গতকাল শনিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এরশাদ এসব কথা বলেন। রোহিঙ্গা উদ্বাস্তু পরিস্থিতিতে গভীরভাবে উদ্বিগ্ন হয়ে সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদ বলেন, স্বাধীনতাত্তোর বাংলাদেশে আমরা ইতোপূর্বে এ ধরণের বিরাট সমস্যার সম্মুখীন হইনি। দশ লক্ষাধিক রোহিঙ্গা নাগরিককে আমাদের মতো দেশে আশ্রয় দেয়া খুবই কঠিন। অপরদিকে মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে আমরা তাদের আশ্রয় না দিয়েও পারি না। তাই আমি সরকারের প্রতি আহ্বান জানাবোÑ এই আর্তমানবতার পাশে আমাদের দাঁড়াতে হবে এবং তাদের আশ্রয় দিতে হবে, সেবা দিতে হবে ও চিকিৎসা দিতে হবে। এর জন্য মিয়ানমার সরকারের প্রতি আমি তীব্র ঘৃণা, নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানাই।

এরশাদ বলেন, আমি আশা করবোÑ মিয়ানমার অবিলম্বে এই বর্বরোচিত কার্যকলাপ বন্ধ করে- দেশ ত্যাগে বাধ্য হওয়া রোহিঙ্গা নাগরিকদের দেশে ফিরিয়ে নেবে এবং তাদের ক্ষতিপূরণসহ পুনর্বাসনের ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। অন্যথায় বিশ^ সম্প্রদায়কে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে অবরোধ আরোপসহ কঠিন ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

জাপার চেয়ারম্যান বলেন, বাংলাদেশ বর্তমানে নানাবিধ সমস্যায় জর্জরিত হয়ে আছে। দেশে এখন খাদ্য সংকট রয়েছে। উপুর্যপুরি বন্যায় ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। দেশের ভবিষ্যৎ খাদ্য পরিস্থিতি নিয়েও আমি উদ্বিগ্ন। তার উপর দশ লক্ষ্যাধিক রোহিঙ্গা শরণার্থীর চাপ বাংলাদেশ কতটুকু গ্রহণ করতে পারবে তা জাতিসংঘসহ উন্নত বিশ^কে বিবেচনা করতে হবে। এমতাবস্থায় বাংলাদেশের পাশে থাকার জন্য আমি গোটা বিশে^র প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ