ঢাকা, মঙ্গলবার 12 September 2017, ২৮ ভাদ্র ১৪২8, ২০ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

রোহিংঙ্গা নির্যাতন বন্ধে জাতিসংঘের ভূমিকা জোরালো করার দাবি

চট্টগ্রাম অফিস : মিয়ানমার সরকার কর্তৃক রোহিঙ্গাদের নির্যাতন ও হত্যা বন্ধের প্রতিবাদে গতকাল সোমবার সকালে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব চত্বরে বাংলাদেশ বাঙালি মূলনিবাসী ইউনিয়ন ও একমুঠো বৌদ্ধতরুণ সংগঠনের আয়োজনে বিশাল মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ শেষে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে বাংলাদেশ বাঙালি মূলনিবাসী ইউনিয়নের আহ্বায়ক প্রকৌশলী পুলক কান্তি বড়ুয়ার সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব সরিৎ চৌধুরী সাজুর সঞ্চালনায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন একমুঠো বৌদ্ধ তরুণ সংগঠনের সভাপতি অনুপম বড়ুয়া পারু, সংগঠক বিপ্লব বড়ুয়া, বিকাশ বড়ুয়া মুকুট, রুবেল বড়ুয়া, ধনঞ্জয় বড়ুয়া রুবেল, আশীষ বড়ুয়া জুয়েল, বটন বড়ুয়া, অঞ্জন বড়ুয়া, ছোটন বড়ুয়া, রিকেশ বড়ুয়া, সাফু বড়ুয়া, সাগর বড়ুয়া ঠিপলু, অম্লান বড়ুয়া শুভ, ডা: লিটন বড়ুয়া, উজ্জল বড়ুয়া জুয়েল, অনন্য বড়ুয়া রনি, রাসেল চৌধুরী প্রমুখ। মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে বাংলাদেশ বাঙালি মূলনিবাসী ইউনিয়ন এর আহ্বায়ক প্রকৌশলী পুলক কান্তি বড়ুয়া বলেন অবিলম্বে রোহিঙ্গা নির্যাতন ও হত্যা বন্ধে জাতিসংঘের ভূমিকা জোরালা করতে হবে। জাতিসংঘসহ বিশ্বসম্প্রদায়ের সুদৃষ্টি কামনা করে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন প্রতিবেশী রাষ্ট্র মায়ানমারকে সুষ্ঠু সমাধানের জন্য বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী যে প্রস্তাব দিয়েছিলেন সে প্রস্তাব উপেক্ষার পরেও প্রতিবেশী রাষ্ট্রের সাথে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রনীতি বন্ধুত্বপূর্ণ রেখে তাই ৫ লক্ষাধিক রোহিঙ্গা শরণার্থীদের চাপ সহ্য করে আমরা মায়ানমারের সাথে কুটনৈতিক সর্ম্পক অক্ষুন্ন রেখে চলেছি। মায়ানমারে অমানবিকভাবে মানব হত্যার প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন শেষে নগরীর জামালখান, চেরাগী পাহাড় হয়ে বিক্ষোভ মিছিলটি প্রদক্ষিণ শেষে পুনরায় প্রেস ক্লাব চত্বরে এসে শেষ হয়। 

 এদিকে বাংলাদেশের মাইজভাণ্ডার দরবার শরিফের গাউসিয়া হক মন্্জিলের সাজ্জাদানশীন এবং শাহানশাহ্ হযরত সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারী (SZHM trust) এর ম্যানেজিং ট্রাস্টি হযরত সৈয়দ মোহাম্মদ হাসান (ম. জি. আ.) বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জাতিগত নির্মূল অভিযানের নিষ্ঠুর পোড়ামাটি নীতিতে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে অবিলম্বে তা বন্ধের জন্য আন্তর্জাতিক হস্তক্ষেপ এবং মিয়ানমারের ভেতরে ‘রাখাইনদের জন্য একটি নিরাপত্তা অঞ্চল’ গঠনে বাংলাদেশের কর্তৃপক্ষীয় উদ্যোগের সাফল্য কামনা করেছেন।পৃথিবীর অতি সাম্প্রতিক সময়ের ইতিহাসে এই জঘন্যতম মানবিক বিপর্যয় জাতিসংঘ সনদ, জেনেভা কনভেনশন প্রভৃতি আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সনদ পদদলিত করেছে বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, মিয়ানমার সেনাবাহিনী নিরীহ, নিরস্ত্র রাখাইন মুসলিম-হিন্দু নির্বিশেষে সাধারণ মানুষের উপর যে নিপীড়ন ও হত্যাযজ্ঞ চালাচ্ছে, তার নিন্দায় সোচ্চার বিশ্ববিবেকের প্রতি আমাদেরও সমর্থন রয়েছে।তিনি বলেন, রাখাইনেরা জন্মসূত্রে সেখানকার নাগরিক এবং তাদের এই অলংঘনীয় অধিকার অস্বীকার করার কোন যুক্তি কারো থাকতে পারেনা। মিয়ানমার সেনাবাহিনীর অব্যাহত সহিংসতা, হত্যা, অগ্নিসংযোগের ঘটনা রোধে তিনি অবিলম্বে নোবেল শান্তি পুরস্কার বিজয়ী অং সূচীর প্রতি আবেদন জানান এবং দুর্গত মানবতার সেবায় দ্রুত এগিয়ে আসার জন্য তুরস্ক, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়াসহ সচেতন মুসলিম বিশ্বের পাশাপাশি জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।হযরত সৈয়দ মোহাম্মদ হাসান (ম. জি. আ.), মিয়ানমারে রোহিঙ্গা সমস্যাকে যুগপৎ জাতিগত, ধর্মীয় সর্বোপরি মানবিক ও রাজনৈতিক সমস্যা হিসেবে অভিহিত করে বলেন, কালাক্ষেপন না করে জাতিসংঘের কফি আনান কমিশনের সুপারিশ দ্রুততম সময়ে বাস্তবায়নের মাধ্যমে এই সমস্যার স্থায়ী সমাধানের পথ উন্মুক্ত হতে পারে। তিনি বাংলাদেশ সরকারের গৃহীত পদক্ষেপ আরো জোরদার করার এবং বাংলাদেশে ঐতিহ্যিক ধারায় চলমান মানবিক সম্প্রীতি সুদৃঢ় ও সংহত করার জন্য দেশবাসীর প্রতি আবেদন জানান। তিনি রাখাইনের দুর্গত মানবতার মুক্তির জন্য মহান রাব্বুল আলামিনের রহমত প্রার্থনা করেন।

মিয়ানমার থেকে বিতাড়িত অসহায় রোহিঙ্গাদের জন্য গঠিত আহলে সুন্নাত ওয়াল জমা’আত সমন্বয় কমিটির ত্রাণ তহবিলে ১১ সেপ্টেম্বর সকালে মোমিন রোডস্থ কার্যালয়ে আহলে সুন্নাতের প্রধান সমন্বয়ক আল্লামা এম এ মতিনের নিকট নগদ অর্থ ও ১৫ বস্তা কাপড় জমা দিয়েছেন বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা চন্দনাইশ উপজেলা। এসময় উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় প্রচার সচিব জননেতা রেজাউল করিম তালুকদার, দক্ষিণ জেলা সম্পাদক মাস্টার মুহাম্মদ আবুল হোসাইন, মহানগর দক্ষিণ সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আলমগীর ইসলাম বঈদী, ছাত্রসেনার কেন্দ্রীয় সিনিয়র সহ-সভাপতি জিএম শাহাদত হোসাইন মানিক, তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক সৈয়দ মুহাম্মদ খোবাইব, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মুহাম্মদ ফরিদুল ইসলাম, গাউসিয়া কমিটির কর্মকর্তা হাজী মুহাম্মদ ফেরদৌস আলম, উপজেলা ছাত্রসেনার সভাপতি মুহাম্মদ শফিকুল ইসলাম, সম্পাদক মোঃ ওসমান শাহাদাত, মুহাম্মদ আব্দুল মুবিন, মুহাম্মদ সাকিফুল ইসলাম, মুহাম্মদ মারুফ ইসলাম, মুহাম্মদ হাসনাইন রেজা হাসিব, মুহাম্মদ জাকের হোসাইন, মুহাম্মদ রুবেল উদ্দিন, মুহাম্মদ সরওয়ার হোসেন প্রমুখ।ত্রাণ গ্রহণকালে আল¬ামা এম এ মতিন বলেন, মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা মুসলমানদের শতাব্দীর নিকৃষ্টতম গণহত্যা চলছে। জাতিগত এ গণহত্যা থেকে বাঁচতে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর প্রতি মানবিক আচরণ ও সহায়তা করা প্রত্যেকের দায়িত্ব ও কর্তব্য। তিনি বলেন, অনাহারে-অর্ধাহারে এ রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী বাংলাদেশে আশ্রয় অবস্থায় আছেন। মিয়ানমারে ফিরিয়ে নেওয়ার পূর্ব পর্যন্ত তাদের সহায়তায় বিত্তবানদের এগিয়ে আসতে হবে। এ জন্য তিনি দেশী ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান। উল্লেখ্য-আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর কক্সবাজার উখিয়া ও টেকনাফে প্রায় ৫০ ট্রাক ত্রাণ নিয়ে অসহায় রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ত্রাণ বিতরণ করবেন আহলে সুন্নাত ওয়াল জমা’আত সমন্বয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ