ঢাকা, মঙ্গলবার 12 September 2017, ২৮ ভাদ্র ১৪২8, ২০ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

আশুলিয়ায় বিস্কুট কিনতে গিয়ে শিশু পাশবিক নির্যাতনের শিকার

 

সাভার সংবাদদাতা : সাভারের আশুলিয়ার জামগড়া গাজীরচট এলাকায় দোকানে বিস্কুট কিনতে গিয়ে ৬ বছরের শিশু পাশবিক নির্যাতনের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় প্রতিবাদ করতে গিয়ে উল্টো হুমকির শিকার হয়েছেন ভুক্তভোগী পরিবার। নিজের দোকানে আটকিয়ে রেখে ওই শিশুকে একটি রুমে মুখ বেধে ধর্ষণ করেন ওই মুদী ব্যবসায়ী। এ ঘটনায় নির্যাতিত শিশুর বাবা বাদী হয়ে দোকানির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন। শিশুর বাবা মহন আলীকে এ নিয়ে মুখ খুলতে নিষেধ করেছেন, কাউকে ধর্ষণের ঘটনা জানালে উল্টো তাদেরকে এলাকার ছাড়ারও হুমকি দেন তারা। এ ঘটনায় গতকাল সোমবার দুপুরে আশুলিয়া থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। 

শিশুটির বাবা মহন আলী বলেন, গতকাল রোববার রাতে তার মেয়ে বাড়ির পাশে দোকানে বিস্কুট কিনতে গেলে কৌশলে দোকানের মালিক কামাল হোসেন তাকে দোকানের ভিতরে নিয়ে যায় ও সাটার বন্ধ করে দেয়। পরে মেয়েকে ধর্ষণ করে। এ সময় মেয়েটির চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে কামাল হোসেন পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে আশুলিয়া থানা পুলিশ অসুস্থ অবস্থায় ওই শিশুকে উদ্ধার করে পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান ষ্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করে। এ সময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করেছে। ধর্ষক কামাল হোসেন আশুলিয়ার গাজীরচট এলাকার আবুল মাঝির ছেলে। ধর্ষক কামালের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, কামালসহ চার ভাই কেউ বাড়িতে নেই। এমনি তার বাবা আবুল মাঝিরও দেখা মেলেনি। স্থানীয়রা জানান, ঘটনা জানাজানি পর থেকেই কামালের পরিবারের লোকজন গা ঢাকা দিয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল আউয়াল বলেন খবর পেয়ে ধর্ষককে গ্রেপ্তার করতে পুলিশ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালাচ্ছে। এ ঘটনায় মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। এছাড়া ওই শিশুকে উদ্ধার করে পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান ষ্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে । 

সাভার ও আশুলিয়া থেকে দুই শ্রমিকের লাশ উদ্ধার

পৃথক ঘটনায় সাভার ও আশুলিয়া থেকে দুই শ্রমিকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার দুপুরে সাভারের রাজফুলবাড়িয়া ও আশুলিয়ার জিরাবো এলাকা থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করে সাভার মডেল থানা ও আশুলিয়া থানা পুলিশ।

পুলিশ জানায় দুপুরে সাভারের রাজফুলবাড়িয়া বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় সিমেন্টের তৈরি একটি স্যানেটারি কারখানার শ্রমিক দীনেশ দাস (৩০) এর লাশ দেখতে পায় স্থানীয়রা। পরে সাভার মডেল থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। 

অন্যদিকে দুপুরে আশুলিয়ার জিরাবো আজাদ পাম্পের পিছনে নীজ ভাড়া বাড়ির একটি কক্ষ থেকে স্থানীয় সাউর্দান ক্লথিং গার্মেন্টস এর শ্রমিক আখের আলীর (২৮) ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে আশুলিয়া থানা পুলিশ। পরে তার লাশ ময়না তদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায় পুলিশ।

কিভাবে তাদের মৃত্যু হয়েছে বিষয়গুলো তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে সংশ্রিষ্ট থানা পুলিশ।

এ ঘটনায় সাভার ও আশুলিয়া থানায় দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ