ঢাকা, বুধবার 13 September 2017, ২৯ ভাদ্র ১৪২8, ২১ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

সোনারগাঁয় ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দু’প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ

 

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) সংবাদদাতা : নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ জি.আর ইনিস্টিটিউশন মডেল স্কুল এন্ড কলেজের পরিচালনা কমিটির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে দুই প্রর্থীর সমর্থকদের মধ্যে  দফায় দফায় ধাওয়া, পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। 

এতে কমপক্ষে পাঁচ জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশংকা জনক।

এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সোনারগাঁ পৌরসভার পানাম নগর এলাকায় অবস্থিত সোনারগাঁ জি.আর ইনিস্টিটিউশন মডেল স্কুল এন্ড কলেজের বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির নির্বাচন গতকাল অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে অংশ নেওয়া অবিভাবক সদস্য প্রার্থী ও সোনারগাঁ পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর দুলাল মিয়ার সমর্থকদের সঙ্গে অপর প্রার্থী সাবেক ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর লায়ন মোশারফের সমর্থকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। 

এসময় মোশারফ হোসেনের সমর্থক রনি মিয়া, বাপ্পি মিয়ার সঙ্গে দুলাল মিয়ার সমর্থক শাহ্ আলীর সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। এর জের ধরে রনি মিয়া ও বাপ্পি মিয়ার নেতৃত্বে ৮-১০ জনের বাহিনী দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হামলা চালিয়ে শাহ্ আলী,শাহীন মিয়াকে পিটিয়ে আহত করে। 

পরে দুলাল হোসেনের সমর্থকরা একত্রিত হয়ে হামলা চালিয়ে বাপ্পি মিয়াকে পিটিয়ে আহত কওে এতে উভয় পক্ষের কমপক্ষে ৫ জন আহত হয়েছে। 

আহতদের মধ্যে শাহ্ আলীর অবস্থা অশংকা জনক। আহতদের উদ্ধার করে সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে এলাকাবাসীরা।

দুলাল মিয়া বলেন, নির্বাচন বাঞ্চাল করতে আমার প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী মোশারফ হোসেনের লোকজন পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে হামলা চালিয়ে আমার সমর্থকদের পিটিয়ে আহত করে। 

এদিকে মোশারফ হোসেন বলেন, দুলাল মিয়ার সমর্থকরা আমার লোকদেরকে পিটিয়ে আহত করেছে।

নির্বাচনে দায়িত্বরত সহকারী প্রিজাইডিং কর্মকর্তা ও সোনারগাঁ উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার তাসলিমা আক্তার বলেন, নির্বাচন অবাধ, নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন করা হয়েছে। 

কেন্দ্রের বাইরে দুই পক্ষের সমর্থকদেও মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটলেও নির্বাচনে এর প্রভাব পড়েনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ