ঢাকা, বুধবার 13 September 2017, ২৯ ভাদ্র ১৪২8, ২১ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

মুসলিম পরিচয়ের কারণেই রোহিঙ্গাদের  উপর বার বার নৃশংস গণহত্যা চলছে

সিলেট ব্যুরো : সিলেট মহানগর জামায়াত নেতৃবৃন্দ বলেছেন, কোন রাষ্ট্র তার নাগরিকদের উপর এমন পরিকল্পিত গণহত্যা চালাতে পারে মিয়ানমারের এই ঘটনাই তার উল্লেখযোগ্য ঘৃন্যতম নজির। শান্তিতে নোবেল পাওয়া একজন নেত্রীর দেশে এই নারকীয় হত্যাযজ্ঞ বিশ্ববাসীকে হতাশ ও ক্ষুব্ধ করেছে। শুধু মুসলিম পরিচয়ের কারণে রোহিঙ্গাদের উপর বার বার নৃশংস গণহত্যা চালানো হচ্ছে। তাদের উপর জঘন্য ও ভয়াবহ নির্যাতন চালানোর পাশাপাশি তাদের বাড়িঘর জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে। নিপীড়নের শিকার হয়ে রোহিঙ্গা মুসলীমরা বছরের পর বছর মানবেতর জীবন যাপন করছে। হাজার হাজার রোহিঙ্গাদের নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে। রোহিঙ্গা মুসলমানদের উপর নৃশংস বর্বর গণহত্যা কোনভাবেই মেনে নেয়া যায় না। অবিলম্বে মিয়ানমারে গণহত্যা বন্ধ ও রোহিঙ্গা মুসলিম নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে জাতিসংঘ সহ আন্তর্জাতিক সংস্থাকে শুধু বিবৃতির মধ্যে সীমাবদ্ধ না থেকে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে। রোহিঙ্গাদের ব্যাপারে গোটা বিশ্ব যখন স্বোচ্ছার সেই সময়ে বাংলাদেশ সরকারের মন্ত্রীর ব্যবসায়িক কারণে মিয়ানমার সফর জাতিকে বিস্মিত করেছে। সরকার রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিলেও তাদের জন্য প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করছেনা। মিয়ানমারের সাথে সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্ন করার পাশাপাশি মিয়ানমারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তারা।

গত সোমবার জামায়াত কেন্দ্র ঘোষিত দেশব্যাপী বিক্ষোভ কর্মসূচির অংশ হিসেবে মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলমানদের উপর নৃশংস গণহত্যার প্রতিবাদে নগরীর বন্দরবাজার এলাকায় বিশাল বিক্ষোভ মিছিল বের করে সিলেট মহানগর জামায়াত। মিছিল পরবর্তী সংক্ষিপ্ত সমাবেশে নেতৃবৃন্দ উপরোক্ত কথা বলেন। মিছিল পরবর্তী সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন- সিলেট মহানগর জামায়াতের সেক্রেটারি মাওলানা সোহেল আহমদ, সহকারী সেক্রেটারি মো: শাহজাহান আলী, হাফিজ মশাহিদ আহমদ, মু. আজিজুল ইসলাম, চৌধুরী আব্দুল বাছিত নাহির, মাওলানা ফয়জুর রহমান, ফয়জুল হক, বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির সিলেট মহানগরী সেক্রেটারি নজরুল ইসলাম প্রমুখ।

নেতৃবৃন্দ বলেন- মিয়ানমার সেনাবাহিনী ও স্থানীয় সন্ত্রাসীরা পুরা রাখাইন রাজ্যকে নরকে পরিণত করেছে। সেখানে হাজার হাজার মুসলমানদেরকে নির্মম ও নিষ্ঠুরভাবে হত্যা করা হয়েছে। সন্ত্রাসীরা নারীদের শুধু ধর্ষণই করছেনা তাদের দেহ কেটে ছিন্ন-ভিন্ন করে দিচ্ছে। জীবন্ত মানুষকে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে হত্যা করে তারা উল্লাস করছে। রোহিঙ্গা মুসলমানদের রক্তে নাফ নদী লাল হয়ে গেছে। মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলমানদের উপর নির্বিচারে ইতিহাসের জঘন্যতম গণহত্যা চলছে। এর বিরুদ্ধে গোটা মুসলিম বিশ্বকে জেগে উঠতে হবে। সীমান্ত পার হয়ে বাংলাদেশে ৩ লক্ষাধিক রোহিঙ্গা মুসলিম আশ্রয় নিয়েছে। তারা তাদের উপর লোমহর্ষক নির্যাতনের কথা শোনাচ্ছে যা শুনলে গা শিউরে উঠে। কিন্তু মিয়ানমার সরকারের হৃদয় ও মন বলে কিছু নেই। মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলমানদের উপর গণহত্যার প্রতিবাদে জাতিসংঘ সহ বিভিন্ন দেশ বিবৃতি দিয়েছে। কিন্তু মিয়ানমারের সরকার সেদিকে কর্ণপাত না করেই গণহত্যা অব্যাহত রেখেছে। বিবৃতি নয় রোহিঙ্গা নির্যাতন বন্ধ ও তাদের নিরাপত্তার জন্য জাতিসংঘ সহ বিশ্ববাসীকে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানান তারা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ